প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

শ্বশুরবাড়িতে মর্যাদা না পেয়ে স্বামীকে হত্যা করেন চতুর্থ স্ত্রী

   
প্রকাশিত: ৮:০১ পূর্বাহ্ণ, ৩ ডিসেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

হবিগঞ্জ শহরের ‘সিহাব রেস্ট হাউসে’ বিষক্রিয়ায় আলমগীর মিয়া নামে একজনের মৃত্যুর ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন নিহতের চতুর্থ স্ত্রী তানিয়া আক্তার। মঙ্গলবার (২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদালতে জবানবন্দি দেন তানিয়া। স্বামীকে মদের সঙ্গে বিষপান করিয়ে হত্যার বর্ণনা দিয়েছেন তিনি।

নিহত আলমগীর সদর উপজেলার সুলতান মাহমুদপুর গ্রামের আবদুর রহিমের ছেলে। তানিয়া বানিয়াচং উপজেলার ইকরাম গ্রামের লুৎফুর রহমানের মেয়ে।

সদর মডেল থানার ওসি মো. মাসুক আলী জানান, শ্বশুরবাড়ি থেকে মর্যাদা না পাওয়ার ক্ষোভে স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন তানিয়া। পরিকল্পনা অনুযায়ী চলতি বছরের ২৩ জুলাই শহরের সিহাব রেস্ট হাউসে তারা একটি কক্ষ ভাড়া নেন। সেখানে মদের সঙ্গে কৌশলে বিষ মিশিয়ে স্বামী আলমগীরকে পান করান। সকালে হোটেল ম্যানেজারকে তানিয়া জানান, তার স্বামী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।

এরপর হোটেল কর্মীদের সহায়তায় আলমগীরকে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। সেখানে কান্নার অভিনয় করেন তানিয়া। এ ঘটনায় থানায় আলমগীরের বাবা হত্যা মামলা করলে পুলিশ তানিয়াকে হাসপাতাল থেকেই গ্রেফতার করে। পরে তাকে রিমান্ডে নিলে স্বামীকে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

কেএ/ডিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: