প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

যারা বলছেন সম্মতিতে যৌনকর্ম দোষের নয়, তারাও দিহানের দোষে দোষী: চরমোনাই পীর

   
প্রকাশিত: ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ, ১৫ জানুয়ারি ২০২১

ফাইল ছবি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর ও শায়খে চরমোনাই মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলছেন, ‘উভয়ের সম্মতিতে যুবক-যুবতি যৌনকর্মে লিপ্ত হলে বিষয়টি দোষের নয়, এই কথা যারা বলছেন, লিখেছে, ছাপিয়েছে, এবং অনুমোদন দিয়েছে তারা সবাই দিহানের দোষে দোষী’। বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেলে বরিশাল নগরীর সদর রোডস্থ অশ্বিনী কুমার টাউন হল চত্বরে বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন তিনি।

ফয়জুল করীম বলেন, বুদ্ধিজীবীরা বলছে যৌন শিক্ষা না থাকার কারণে আনুশকা ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনা ঘটছে। আমি বলব, যারা যৌনশিক্ষা দিয়েছে তাদের কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে। দিহানের বিচার হওয়া উচিত, কিন্তু আনুশকার কি কোন দোষ নেই বলে প্রশ্ন করেন তিনি। তিনি আরও বলেন, বর্তমান প্রশাসন রাষ্ট্রের কাজ না করে দলীয় যন্ত্রে পরিণত হয়েছে। এটি দেশের জন্য ধ্বংসকর বলে মনে করেন তিনি। একই সাথে দলীয় স্বার্থে প্রসাশনকে ব্যবহার করার অভিযোগ করেন ফয়জুল। এছাড়া দেশের বর্তমান অবস্থা খুব খারাপ বলে দাবি করেন তিনি।

শায়খে চরমোনাই মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম বলেন, স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত যারা দেশ শাসন করেছেন তারা মানুষকে ভালো রাখার আশ্বাস দিয়েছিল কিন্তু তা বস্তবে নেই। যোগ্যতা না থাকার কারণে দেশের এঅবস্থা বলে মনে করেন তিনি। ১০ বছরে দেশে ১০ লাখ কোটি টাকা দুর্নিতি হয়েছে ধর্ষন হয়েছে অসংখ্য বলে বক্তৃতায় উল্লেখ করেন তিনি।

ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন বরিশাল মহানগর শাখার নগর সম্মেলন ২০২১ উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ মন্তব্য করেন। ২০১৯ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রতি মাসে গড়ে ৮৪টি শিশু ধর্ষণের শিকার হচ্ছে। এ ছাড়া এক বছরে যৌন নির্যাতন বেড়েছে ৭০ শতাংশ। দর্শন বাংলাদশে দিনদিন বেড়েই চলছে।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: