প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

ভারতে টিকা নেওয়া স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু, কর্তৃপক্ষ বলছে টিকা কারণ নয়

   
প্রকাশিত: ১০:৫২ পূর্বাহ্ণ, ১৯ জানুয়ারি ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নেওয়ার ২৪ ঘণ্টা পার না হতেই ভারতের উত্তর প্রদেশের মোরাদাবাদ জেলায় মহিপাল সিং নামে এক স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে। আজ সোমবার (১৮ জানুয়ারি) এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, এই মৃত্যুর সঙ্গে ভ্যাকসিনের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন জেলার প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা। তবে, তার পরিবারের অভিযোগ, ভ্যাকসিন নেয়ার পর থেকেই তার শরীর খারাপ লাগছিল।

গতকাল রোববার (১৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় মহিপাল সিং নামে ৪৬ বছর বয়সী ওই স্বাস্থ্য কর্মী মারা যান। তবে এই মৃত্যুর সঙ্গে ভ্যাকসিনের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন জেলার প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা। মৃত্যুর আগে বুকে চাপ ধরে আসা এবং শ্বাসকষ্টের সমস্যার কথা জানিয়েছিলেন ওয়ার্ড বয় মহিপাল সিং। মোরাদাবাদের প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা বলেন, তাকে শনিবার দুপুরে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। রবিবার দুপুরে তিনি বুকে চাপ বোধ করেন এবং শ্বাসকষ্ট অনুভব করেন। তার মৃত্যুর কারণ আমরা অনুসন্ধান করছি। পোস্টমর্টেম হয়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী তার মৃত্যু ভ্যাকসিনের কারণে হয়েছে বলে মনে হয়নি। তিনি শনিবার ডিউটি করেছেন, কোনো সমস্যাও ছিল না।

মহিপাল সিংয়ের ছেলে বিশাল বলেন, বাবা আগে থেকেই খারাপ বোধ করছিলেন। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর থেকে তার অবস্থা বেশ খারাপ হয়ে যায়। বাবা দেড়টার দিকে ভ্যাকসিন সেন্টার থেকে বের হন। আমি তাকে বাসায় নিয়ে আসি। তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল এবং অনেক কাশছিলেন। তার কাশি ছিল, কিন্তু বাসায় ফেরার পর অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে যায়। গত শনিবার প্রথম দিনে উত্তর প্রদেশে ২২ হাজার ৬৪৩ জনকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। আগামী ২২ জানুয়ারি ২য় দিনের মতো ভ্যাকসিন বিতরণ করার কথা রয়েছে রাজ্যটিতে।

উল্লেখ্য, ভারতব্যাপী করোনা ভ্যাকসিন দেওয়া শুরুর প্রাক্কালে দিল্লির ছয়টি সরকারি হাসপাতালের ৭০ শতাংশের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী ভারতীয় কোম্পানি ভারত বায়োটেক উদ্ভাবিত ভ্যাকসিন নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: