প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

বাসের সব যাত্রী নেমে গেল, তবে শপিং ব্যাগে পড়ে রইল মানুষের পা!

   
প্রকাশিত: ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ, ২১ জানুয়ারি ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

এবার রাজধানীতে বাসের মধ্যে পাওয়া গেছে মানুষের কাটা পা। পুলিশের ধারণা, কাউকে হ’ত্যা করে মরদেহ টুকরো টুকরো করে শহরের বিভিন্ন স্থানে ফেলে রাখতে পারে খুনীরা। জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে বলেও জানানো হয়েছে। রাজধানীর আট নম্বর বাসটি যাত্রাবাড়ি থেকে ছেড়ে মতিঝিল-শাহবাগ-ফার্মগেট-শ্যামলী হয়ে গাবতলীতে পৌঁছানোর পর নেমে যায় সব যাত্রী। তারপর বাসের ভেতর পরিষ্কার করতে গিয়ে পলিথিনের একটি শপিং ব্যাগ দেখতে পান হেলপার। ব্যাগ খুলতেই বেরিয়ে আসে মানুষের ক্ষত-বিক্ষত রক্তাক্ত পা।

ঘটনার আকস্মিকতায় ভীত-সন্ত্রস্ত্র হেলপারের চিৎকারে এগিয়ে আসেন বাস চালক ও কন্ডাক্টর। কাটা পা দেখে হতবিহবল হয়ে পড়েন তারা। বাস মালিককে ফোন করে জানান পুরো ঘটনা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে বাসটি জব্দ করে দারুস সালাম থানা পুলিশ। হেললপার, কন্ডাক্টর ও চালককে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন তদন্তকারীরা। পরে তাদেরকে নিয়ে আট নম্বর বাসের রুট পরিদর্শন করে পুলিশ। কোথায় কোথায় বাস থেমেছিল, কোথায় যাত্রী উঠেছিল, যাত্রী নেমেছিল- এসব তথ্য সংগ্রহের পর সিসিক্যামের ফুটেজ সংগ্রহের চেষ্টা চলছে। তবে এখনও পলিথিনের ব্যাগ বহনকারীকে চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। কোন ব্যক্তিকে হত্যা করে মরদেহ টুকরো টুকরো করে শহরের বিভিন্ন স্থানে ফেলে দিয়ে থাকতে পারে খুনীরা। সম্ভাব্য এই ধারণাসহ সবকিছু বিবেচনায় নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

দারুস সালাম থানার পরিদর্শক (অনুসন্ধান) মো. দুলাল হোসেন বলেন, এটা মৃত ব্যক্তির পা, নাকি কোনো জীবীত ব্যক্তির পা আর কোনো ঘটনা এর সাথে আছে তা তদন্তের বিষয়। এজন্য আসল তথ্য সংগ্রহে এই পায়ের ডিএনএ প্রোফাইল দেখার জন্য সোহরাওয়ার্দী মেডিকেলে পাঠিয়েছি। বাসের মধ্যে মানবদেহের টুকরো ফেলে রেখে যাওয়ার ঘটনাকে নজিরবিহীন বলছে পুলিশ।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: