প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সাতক্ষীরায় জেলের জালে এক ঝাঁক ভোলা মাছ!

   
প্রকাশিত: ৬:১৬ অপরাহ্ণ, ২২ জানুয়ারি ২০২১

সাতক্ষীরা পশ্চিম সুন্দরবন রেঞ্জের রায়মঙ্গল নদীতে জেলে রফিকুল ইসলামের জালে ধরা পড়েছে ১২৬টি ভোলা মাছ। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যেও সৃষ্টি হয়েছে। এতেই ভাগ্য খুলেছে এই মৎস্যজীবীর। প্রত্যেকটি মাছের ওজন ৭-২০ কেজি পর্যন্ত। রফিকুল ইসলাম ৫৯০ টাকা কেজি দরে মাছগুলো বিক্রি করে পেয়েছেন ৫ লাখ ৯০ হাজার টাকা। একত্রে মোটা অংকের টাকা পেয়ে মৎস্যজীবী রফিকুল ইসলামের পরিবারে বইছে আনন্দের জোয়ার। মৎস্যজীবী রফিকুল ইসলাম সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার রমজাননগর ইউনিয়নের টেংরাখালি গ্রামের বাসিন্দা।

রফিকুল ইসলাম জানান, সুন্দরবন সংলগ্ন রায়মঙ্গল নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিল। ২১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে নদীতে জোয়ার আসে। সেই জোয়ারে ফেলা জালে ধরা পড়ে এক ঝাঁক লাউভোলা মাছ। ১২৬টি মাছের ওজন হয়েছে প্রায় ১০৫১ কেজি।

জেলে রফিকুল ইসলাম জানান, সুন্দরবন থেকে গতকাল ধরে আনা মাছগুলো শুক্রবার (২২ জানুয়ারী) ৫ লক্ষ ৯০ হাজার টাকায় মাছগুলো বিক্রি করেছি। একই এলাকার মাছ ব্যবসায়ী নূর হোসেন গাজী মাছগুলো কিনেছেন। সাতক্ষীরার শ্যামনগর বংশীপুর সোনার মোড় এলাকার মদিনা ফিসের সত্ত্বাধিকারী হারুনুর রশিদ জানান, মাছ ব্যবসায়ী নুর হোসেন গাজী আমার মৎস্যসেটে মাছগুলো ৬ লাখ ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করে গেছেন। সামুদ্রিক মাছ হিসেবে ভোলামাছ খেতে বেশ সুস্বাদু। এ মাছের ফুলকা ভারতসহ বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হয়। যে কারণে স্বাদের পাশাপাশি এই মাছের চাহিদা ও দাম চড়া হওয়ার মূল কারণ হলো গ্রেড অনুযায়ী প্রতি কেজি ফুলকার মূল্য ২৫-৩০ হাজার টাকা। ভোলা মাছের ফুলকা দিয়ে প্রসাধনী ও মূল্যবান ওষুধ তৈরি হয়।

 

কাওসার/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: