প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ইউপি নির্বাচন-২০২১

খান শহিদকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসাবে দেখতে চান মঘিয়া ইউনিয়নবাসী

   
প্রকাশিত: ৫:২৩ অপরাহ্ণ, ১ মার্চ ২০২১

আব্দুল্লাহ আল ইমরান বাগেরহাট থেকে: বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলার মঘিয়া ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচনে কচুয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি খান শহিদুল ইসলামকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে দেখতে চান মঘিয়া ইউনিয়ন বাসী। দীর্ঘ দিন সুবিধা বি ত দরিদ্র অসহায় মানুষের মাঝে কাজ করায় এলাকায় ব্যাপক জনপ্রিয়তায় সৃষ্টি হয়েছে। আর এ জনপ্রিয়তার কারনে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে খান শহিদুল ইসলামকে চান এলাকাবাসী। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের ত্যাগী নেতা হিসাবে এলাকায় পরিচিত।

এলাকার অসহায় দরিদ্র শিক্ষার্থীদের বই কিনে দেয়াসহ এলাকার অসহায় মানুষকে বিভিন্ন ভাবে সহায়তা করে আসছেন তিনি। এছাড়া ইউনিয়নের সাধারন মানুষের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান,ঝগড়া-বিবাদ নিরসনসহ বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজ করায় বর্তমানে তিনি এলাকার সুবিধা বি ত মানুষের আশ্রয়স্থলে পরিণত হয়েছেন। এজন্য এলাকার দলীয় ও সাধারন মানুষের একটাই দাবী আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যাতে খান শহিদুল ইসলামকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, খান শহিদুল ইসলাম জন্মসূত্রে আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। ১৯৯০ সালে স্বৈর-শাসক এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে যোগদানের মাধ্যমে রাজনীতিতে তার হাতেখড়ি। ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত অত্যন্ত দায়িত্বশীল ভাবে তিনি কচুয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ফলে ২০০৯ সাল থেকে কচুয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ও বাগেরহাট জেলা শ্রমিক লীগের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

এছাড়া তিনি দলীয়ভাবে ২০০৮ ও ২০১৪ সালের নির্বাচনে মঘিয়া ইউনিয়ন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের এ নেতা বিএনপির আমলে হত্যাসহ একাধিক মিথ্যা মামলায় হয়রানীর শিকার হয়ে একাধিক বার কারাবরণ করেছেন।

মঘিয়া যুবলীগ সভাপতি অচিন্ত মল্লিক বলেন, এলাকার মানুষের সুখে দুখে আমরা সব সময় শহিদ ভাইকে কাছে পেয়েছি। আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের নেতা তিনি। এলাকার অসহায় দরিদ্র মানুষদের শেষ আশ্রয়স্থল তিনি। আমি আশাকরি দলের জন্য বিশেষ অবদানের জন্য আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তাকে মঘিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করবেন।

মঘিয়া ইউনিয়নের শ্রমিক লীগের সভাপতি কামরুল দরানী বলেন, খান শহিদ আওয়ামী লীগের দীর্ঘদিনের ত্যাগী নেতা। শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ করার কারনে তিনি বিএনপির আমলে মিথ্যা মামলাসহ নানা ভাবে হয়রানীর শিকার হয়েছেন। একাধিক বার করাবরন করেছেন। দুর্দিনে তিনি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের আগলে রেখেছেন। এমনকি তার জায়গা-জমি বিক্রি করে তিনি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সহায়তা করেছেন। এছাড়া এলাকার অসহায় মানুষ দিনে রাতে যে কোন সময় তাকে ডাক দিলে তিনি তাদের আহবানে সাড়া দিয়ে ছুটে গিয়েছেন। তিনি যদি মঘিয়া ইউনিয়ন থেকে দলীয় মনোনয়ন পান, তাহলে ইউনিয়ন ব্যাপক উন্নয়নের পাশাপাশি অসহায় দরিদ্র মানুষেরা উপকৃত হবে।

মঘিয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নেয়ামুল হক বলেন, শহিদ ভাই হচ্ছে গন-মানুষের নেতা। মঘিয়া ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগনের পাশাপাশি তিনি কচুয়া উপজেলায় ব্যাপক জনপ্রিয়। আমরা তাকে মঘিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই। তিনি বলেন,বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তাকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার মাধ্যমে মঘিয়া ইউনিয়ন বাসীর মনের সঠিক চাওয়া পূরণ করবে বলে আমি আশা করি ।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: