প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

নারীকে বাস থেকে ছুড়ে ফেললেন হেলপার (ভিডিও)

   
প্রকাশিত: ৩:০৫ অপরাহ্ণ, ৮ মার্চ ২০২১

এন মল্লিক পরিবহনের এসি বাস থেকে এই নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। জানা যায়,ভাড়া নিয়ে তর্কের জেরে এঘটনা ঘটে। ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সেটা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে যায়। রোববার (৭ মার্চ) বিকেলে ঢাকা জেলার অন্তর্গত কেরানীগঞ্জ উপজেলার রোহিতপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী বেসরকারি টেলিভিশনকে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী গতকাল রোববার রাতে নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে এ ঘটনার একটি ভিডিও শেয়ার করেন। ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা আছে ‘ভাড়া নিয়ে তর্কের জেরে এন মল্লিক পরিবহনের এসি বাস থেকে এই নারীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন!’ এ ঘটনায় মোজাম্মেল হক একটি বেসরকারি টেলিভিশনকে বলেন, এটি মল্লিক পরিবহনের একটি বাস। এই বাসটি গুলিস্তান থেকে নবাবগঞ্জ সড়কে চলাচল করে। এ ঘটনার ভিডিওতে আশপাশের যে মার্কেটগুলো দেখা যাচ্ছে সেতা রোহিতপুর এলাকার। এই ঘটনাটি কবে ঘটেছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই ঘটনাটি গতকাল রোববার বিকালে ঘটেছে। তবে যে নারী যাত্রীকে বাস থেকে ফেলে দেওয়া হয়েছে তার পরিচয় সম্পর্কে কিছুই জানাতে পারেননি তিনি। বলেন, আমরা তার পরিচয় শনাক্ত করতে পারিনি।

এ ঘটনায় যাত্রী কল্যাণ সমিতি কী পদক্ষেপ নিয়েছে জানতে চাইলে মোজাম্মেল হক বলেন, আমরা ঘটনার বিষয়ে জানতে পারার পরে আজ সোমবার সকালে বিআরটিএকে বলেছি। যেহেতু গাড়ির নম্বর স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে। তাই আমরা গাড়ির নম্বরটিসহ বিআরটিএর অভিযোগ সেলে আমরা জানিয়েছি। ভিডিওতে দেখা যায়, এন মল্লিক পরিবহনের একটি বাস থেকে হেলপার এক নারীকে টেনে রাস্তায় ছুড়ে ফেলে দেন। এরপর বাসটি সামনে চলে যায়। ওই নারীকে ফেলে দেওয়ার পর তিনি প্রচুর কান্না করছিলেন বলে ভিডিওতে দেখা যায়।

ভিডিওর একপর্যায়ে ওই বাসের নম্বরটি স্পষ্ট দেখা যায়। গাড়ির নম্বরটি হলো- ঢাকা মেট্রো-ব-১৩-১৫২১। এই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে সেটা রীতিমতো ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকেই এই ভিডিওটি শেয়ার করছেন। কেউ কেউ কমেন্টে অনেকেই এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: