ফরমান শেখ

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

‘করোনাকি শুধু বাসের মধ্যে ?’

   
প্রকাশিত: ২:০১ অপরাহ্ণ, ১ এপ্রিল ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আবারো হু-হু করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এরইমধ্যে করোনার বিস্তাররোধে সরকার ১৮ নির্দেশনাও বেঁধে দিয়েছে। তারমধ্যে অন্যতম সিদ্ধান্ত গণপরিবহনগুলোতে ৬০% ভাড়া বৃদ্ধি। যা কার্যকর হয়েছে গতকাল (৩১ মার্চ) সকাল থেকে। আর এ নিয়েই জনসাধারণ যাত্রীরা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এর মধ্যে আজ সকালে (১ এপ্রিল) বাসে উঠতে না পেরে বিক্ষোভ করেছেন কর্মস্থলগামী যাত্রীরা। রাজধানীর নিকুঞ্জ এলাকার খিলক্ষেত সড়কে সকালে বিক্ষোভ করেন তারা। আজ বৃহস্পতিবার ১ এপ্রিল সকাল সাড়ে ৯টায় যাত্রীরা কয়েকটি বাস আটকে রাখেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বিক্ষোভকারীদের বুঝিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

যাত্রীরা বলছেন- ‘বাসে অর্ধেক যাত্রী পরিবহনে ৬০% ভাড়া বৃদ্ধি অযৌতিক। কেননা আমরা নিম্ন আয়ের মানুষ। তারা জানান- করোনা কি শুধু গণপরিবহনগুলোতে। স্বাস্থ্যবিধি তোয়াক্কা না করে হাট-বাজার ও রাজধানীর বিভিন্ন অলিগতিতে অবাধে মাস্কবিহীন চলাচল করছে মানুষ।’

রাজধানীর সাভার এলাকার রহিমা, শেফালী বেগম, ইশমত আরা, কদ্দুস ও সমুন এলাকার একাধিক গার্মেন্টস কর্মীরা জানান- দিনে দু’বার করে বাসে যাতায়াত করতে হয়। পাঁচ টাকার ভাড়া দাঁড়িয়েছে দ্বিগুণে। আমরা যাত্রীরা পূর্বের ভাড়ায় বাসে চলাচল করতে চাই।

শুধু বাসে নয়, ভাড়া বেড়েছে সিএনজি, লেগুনা ও রিকশাসহ বিভিন্ন পরিবহনে। কিন্তু এসব পরিবহন শ্রমিকরা কেউও স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। পরিবহনগুলোতে নেই স্বাস্থ্য সুরুক্ষায় কোন সামগ্রী। যতযত্র যাত্রী ওঠানামা। করোনায় অফিস টাইমে বাসের সংকট দেখা দেয়ায় অফিসগামীদের বাসে ওঠতে কঠিন যুদ্ধ করতে হয় ।

এদিকে, আগের বারের অভিজ্ঞতায় তাদের অভিযোগ, ভাড়া বেশি নিলেও বাস ভর্তি যাত্রী ওঠানো চলে অহরহই। যাত্রীরা অভিযোগ করে আরও জানান, ওনারা যদি একজন করে নিত তাহলে আমরা সেভাবে যেতাম। তারা সেই নিয়ম মানছে না। উল্টো পুরো সিটে যাত্রী নিয়ে ভাড়া বেশি নেবে। বাসের হেলপার, সুপার ও ভাইজাররা সিট না থাকলেও জোর করে যাত্রী তোলেন। অপরদিকে, গণপরিবহনে ভাড়া বৃদ্ধিতে সচেতন নাগরিক মহল তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

রোমান নামে একজন যাত্রী বলেন, ‘বাসের আচরন দেখে মনে হচ্ছে করোনা শুধু বাসের মধ্যেই’। তিনি যুক্তি উপস্থাপন করে বলেন, ‘এই যে বাসে অর্ধেক যাত্রী নিচ্ছে আর বাকিরা ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দারিয়ে আছে। সেখানে একজন আরেকজনের সাথে মিশে দাড়িয়ে আছে। অথচ মনে হচ্ছে করোনা সব বাসের মধ্যেই, বাহিরে নাই।’

উল্লেখ্য, সরকারের নির্দেশনায় গণপরিবহনে অর্ধেকের বেশি যাত্রী নেওয়া যাবে না বলে জানানো হয়েছে। একই সঙ্গে গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলা হয়েছে। সোমবার (২৯ মার্চ) দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এ নির্দেশনা জারি করা হয়।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: