প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

বিদেশফেরতদের কোয়ারেন্টিনে থাকার সময়সীমা পরিবর্তন

   
প্রকাশিত: ৭:০৫ অপরাহ্ণ, ২৩ এপ্রিল ২০২১

বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের থাকার যে নির্দেশনা দিয়েছিল সরকার- সে সময়সীমা এখন কমিয়ে আনা হয়েছে। বিদেশফেরতদের এখন কোয়ারেন্টিনে ১৪ দিনের পরিবর্তে ৫ দিন থাকতে হবে। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) রাতে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় সিদ্ধান্ত হয়, তবে যাদের করোনার দুটি ভ্যাকসিন নেওয়া আছে এবং করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট আছে, তাদের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকা লাগবে না। তারা বাড়িয়ে গিয়ে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকবেন। স্থানীয় প্রশাসন তা নিশ্চিত করবে।
এ সময় আরও সিদ্ধান্ত হয়, যাদের করোনা ভ্যাকসিনের একটি ডোজ নেওয়া আছে এবং করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকট রয়েছে তাদের ৩ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হবে। তাদের দেশে প্রবেশের পর করোনা টেষ্ট করানো হবে। তাতে নেগেটিভ রিপোর্ট এলে বাকি ১১ দিন বাড়িতে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।

প্রসঙ্গত, ১৪ এপ্রিল থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ করে বেবিচক। পরে প্রবাসী কর্মীদের কর্মস্থলে ফেরার বিষয় বিবেচনা করে ১৭ এপ্রিল থেকে পাঁচ দেশের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচলের বিশেষ অনুমতি দেয়া হয়। একই সঙ্গে ঘোষণা করা হয়, যারা বিদেশ থেকে আসবেন তাদের ১৪ দিন বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এক্ষেত্রে প্রবাসীরা সরকারি কোয়ারেন্টিন সেন্টারে থাকতে পারবেন, পাশাপাশি কেউ চাইলে সরকার নির্ধারিত হোটেলগুলোতেও কোয়ারেন্টিনে থাকতে পারবেন।

এদিকে এয়ারলাইনসগুলো বলছে, হোটেলে কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক করায় যাত্রীদের নিয়ে বিপাকে পড়তে হচ্ছে। অনেকেই হোটেলে থাকতে চান না, তারা সরকারি কোয়ারেন্টিন সেন্টারে যেতে চান। কিন্তু সরকারের তরফ থেকে তথ্য না থাকলে তো আমরা যাত্রীদের বোর্ডিংও করতে পারছি না।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: