প্রচ্ছদ / শিক্ষা / বিস্তারিত

অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত জানিয়েছে ইউজিসি

   
প্রকাশিত: ৫:৩৬ অপরাহ্ণ, ৬ মে ২০২১

ফাইল ছবি

করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘ বন্ধে শিক্ষার্থীরা বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ পরীক্ষাগুলো এখন থেকে অনলাইনে নেওয়া যাবে বলে সিদ্ধান্ত দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। আজ বৃহস্পতিবার (৬ মে) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ও বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা জুম প্লাটফর্মে বৈঠক করে এ সিদ্ধান্ত নেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ড. মূনাজ আহমেদ নূর গণমাধ্যমকে বলেন, বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এখন থেকে যারা চাইবে তারা অনলাইনে শুধু একাডেমিক পরীক্ষাগুলো নিতে পারবে। সেক্ষেত্রেও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে একাডেমিক কাউন্সিলে অনুমোদন নিতে হবে। উপাচার্য ড. মূনাজ জানান, অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য ইউজিসির টেকনিক্যাল কমিটি একটি গাইডলাইন তৈরি করেছে। সব বিশ্ববিদ্যালয়কে এ গাইডলাইন ফলো করে পরীক্ষা নিতে হবে।কীভাবে প্রশ্ন করতে হবে, কীভাবে পরীক্ষা মনিটরিং করতে হবে, তার সবকিছু বলা আছে।

এদিকে ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক দিল আফরোজাও জানান একই তথ্য। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অনলাইনে পরীক্ষা নেবে। তবে কীভাবে নেবে, সেটা নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় আলোচনা করে ঠিক করবে। এ বিষয়ে তারা একটি গাইড লাইন তৈরি করেছেন। সেটা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এরপর মন্ত্রণালয় সেটা পরিপত্র আকারে জারি করলে তা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে পাঠানো হবে।

দেশে গত বছরের ৮ মার্চ করোনার প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে।তার দশদিন পর ১৮ মার্চ করোনায় প্রথম মৃত্যুর খবর দেয় সরকার।তার আগের দিন থেকেই দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়।এরপর দফায় দফায় সেই ছুটির সময়সীমা বাড়ানো হয়। সর্বশেষ ২৩ মে স্কুল-কলেজ ও ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। কিন্তু দেশে করোনার দ্বিতীয় আঘাত শুরু হওয়ায় ওই তারিখে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে কি না, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: