প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

রফিকুল ইসলাম

বান্দরবন প্রতিনিধি

বান্দরবানে এক ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যদের বিরুদ্ধে গ্রাম পুলিশ সদস্যের স্ত্রীর ধর্ষণ মামলা

   
প্রকাশিত: ৮:২৬ অপরাহ্ণ, ৬ মে ২০২১

মাবান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও এক সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বান্দরবানের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে মামলাটি দায়ের করেন ওই ইউনিয়নের দরদরি ইব্রাহিম লিডার পাড়ার গ্রাম পুলিশের সদস্য মোঃ বেলাল হোসেনের স্ত্রী রুবি আক্তার।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মোঃ সাইফুর রহমান সিদ্দীক মামলাটি সিআইডিকে তদন্ত করে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৩ অক্টোবর রুবি আক্তারের স্বামী বেলাল হোসেন স্থানীয় একটি মামলায় গ্রেপ্তার হন। ঐ মামলার তদবির নিয়ে রুবি আক্তার ১৫ অক্টোবর রুপসীপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাচিং প্রু মার্মার বড় নুনারবিলের বাসায় গেলে সেখানে একা পেয়ে চেয়ারম্যান তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এবং এই ঘটনা কাউকে না জানাতে অভিযোগকারীকে সাসিয়ে দেন।

এর আগে ওই ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান রুবি আক্তারকে নানাভাবে প্রলোভন দেখায় বলে এজাহারে রুবি আক্তার উল্লেখ করেন। এ ঘটনায় রুবি আক্তার বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার বান্দরবান নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯(১)৩০ ধারায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

আদালতের পেশকার মোঃ মাইনুল ইসলাম জানিয়েছেন বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি সিআইডির ইন্সপেক্টরকে তদন্ত করে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার বিষয়ে আসামি ইউপি চেয়ারম্যান সাচিং প্রু মার্মার সাথে কথা বলা হলে তিনি ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে মামলাটি ষড়যন্ত্রমূলক বলে উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য গত ৪ মার্চ বান্দরবানে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের কার্যক্রম শুরু হয়। এর আগে এই আদালতটি ছিল চট্টগ্রামে। বান্দরবানে আদালতটি চালু হওয়ায় এখন প্রত্যন্ত এলাকায় বিচার-প্রার্থীদের দুর্ভোগ কমবে বলে স্থানীয়রা মনে করছেন।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: