একসঙ্গে দুই বোনকে বিয়ে করে বিপাকে যুবক, ঠাই হলো কারাগারে

   
প্রকাশিত: ১০:৪৭ পূর্বাহ্ণ, ২১ মে ২০২১

সিনেমার গল্প নয়, বাস্তবেই ঘটল সিনেমার মত অকল্পনীয় এবং চাঞ্চল্যকর ঘটনা। দুই বোনকে একই সময়ে বিয়ে করলেন এক ব্যক্তি। সেই ঘটনার জানাজানি হলে গ্রেফতার করা হয় ওই ব্যক্তিকে। ভারতের কর্নাটকের কোলার শহরে এ ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা’র এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, একই মন্দিরে বিবাহের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। আর সেই বিবাহের ভিডিও ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। উমাপাতি নামের ৩০ বছর বয়সী এক যুবক গত ৭ মে একই গ্রামের ১৯ এবং ১৬ বছর বয়সী দুই বোনকে বিয়ে করেন। ওই বিয়ের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়। সোমবার পুলিশ উমাপতিকে গ্রেপ্তার করে।

উক্ত এ বিয়ে নিয়ে দুই বর ও তার পরিবারের সঙ্গে দুই বোনের পরিবারও খুশি ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাদের সেই আনন্দ বিষাদে পরিণত হয়েছে যখন হিন্দু বিবাহ আইন অনুযায়ী কোনো ব্যক্তি একসঙ্গে দুজনকে বিয়ে করতে পারেন না অভিযোগ তুলে পুলিশ বরকে গ্রেফতার করে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের তথ্য অনুযায়ী, উমাপতি দুই বোনের মধ্যে ললিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। ললিতা তাকে বিয়ে করতে রাজী হলেও এক শর্ত রাখেন। ললিতা জানান, তার বোন সুপ্রিয়াকেও একসঙ্গে বিয়ে করতে হবে। কারণ বাক প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণে সুপ্রিয়ার বিয়ে হচ্ছিল না। পরে দুই পরিবারের সম্মতিতেই উমাপতি দুই বোনকে একই মণ্ডবে বিয়ে করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এই ধরনের ঘটনা ওই পরিবারে আগেও ঘটেছে। কনের বাবা নাগরাজাপাও একই মণ্ডপে দুই বোনকে বিয়ে করেছিলেন। কারণ দুই বোনের একজন বাক প্রতিবন্ধী ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে মধ্যপ্রদেশে এক ব্যক্তি নিজের স্ত্রীকে আবারও বিয়ে করেন। পাশাপাশি ওই অনুষ্ঠানে নিজের শ্যালিকাকেও তিনি বিয়ে করেন। এবার সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হল কর্ণাটকে।

হিন্দু বিবাহ আইন অনুযায়ী, প্রথম স্ত্রীকে তালাক না দিলে দ্বিতীয় বিয়ে আইনত বিয়ে হিসেবে বিবেচিত হবে না।

তুষার/জু.সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: