প্রচ্ছদ / স্পোর্টস / বিস্তারিত

সাকিবের বিষয়ে সিদ্ধান্ত রাতে

   
প্রকাশিত: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, ১১ জুন ২০২১

ছবি: সংগ্রহীত

মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অপ্রীতিকর এক ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে। আবাহনী লিমিটেড বনাম মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবের মধ্যকার ম্যাচে মেজাজ হারালেন সাকিব আল হাসান। আম্পায়ারের উপর রাগ হয়ে প্রথমে স্টাম্পে লাথি মারলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। এরপর আম্পায়ারের সামনে থেকে তিনটি স্টাম্পই তুলে নিয়ে সজোরে আছাড় মারলেন মোহামেডানের অধিনায়ক। দুই দফা স্ট্যাম্প উপড়ে ফেলতে দেখা যায় মোহামেডানের অধিনায়ককে।

সাকিবের বিষয়ে ম্যাচ রেফারির রিপোর্ট আসার পর শুক্রবার (১১ জুন) রাতে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে জানিয়েছেন ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) চেয়ারম্যান কাজী ইনাম।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে মাঠে নামে আবাহনী-মোহামেডান। আম্পায়রদের সিদ্ধান্ত না মেনে ক্ষোভে ফেটে পড়েন সাকিব। ম্যাচটি অবশ্য বৃষ্টি আইনে ৩১ রানে জিতে নেয় তার দল। ম্যাচের পর সিসিডিএম প্রধান ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক কাজী ইনাম সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন, খেলার মাঠে অনেক কিছুই হয়। আজকের আবাহনী-মোহামেডানের খেলায় বেশ উত্তেজনা ছিল। কয়েকটি ঘটনাও ঘটেছে। সাকিব আল হাসানকে আমরা দেখতে পেরেছি। ম্যাচটি ফেসবুক ও ইউটিউব লাইভ হচ্ছিল। আপানারা সবাই দেখতে পেয়েছেন। ঘটনাটা অপ্র্যাতাশিত। খেলা চলাকালে রাগ হতেই পারে। তবে খেলোয়াড়দের সব সময় আবেগ নিয়ন্ত্রণে রাখা উচিৎ।

নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে উল্লেখ করে ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের সভাপতি বলেন, আর্ন্তজাতি ম্যাচগুলোতে যেমন থাকে (নিয়ম) আমাদের এখানেও এমনি। এটা কিন্তু লিস্ট ‘এ’ গেম। এখানে টিম কন্ট্রোল আমাদের যারা দেখে, ম্যাচ রেফরি ম্যাচ আম্পায়ার্স তারা একটা রিপোর্ট দিবে। আমরা আশা করছি আজ রাতে তাদের রিপোর্ট আসবে। সেখানে সব নিয়ম দেয়া আছে, আপনি কোনো নিয়ম ভাঙলে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঘরোয়া ক্রিকেটে অনেক সময় পাতানো খেলা অথবা প্রশ্নবিদ্ধ আম্পায়ারিংয়ের অভিযোগ উঠে। চলমান ডিপিএলেও এমন অভিযোগ করেছে একাধিক দল।

আমাদের খেলায় কিন্তু স্ট্রেট ভিউ ক্যামেরা আছে। সব স্পষ্ট। আপনি সব সময় খেলা দেখতে পারবেন। ক্রিকেট ইজ জেন্টালম্যান্স গেমস। ক্রিকেটে আম্পায়ার্স ডিসিশন ইজ দ্য ফাইনাল ডিসিশনাস। অনেক সময় সিদ্ধান্ত আপনার পছন্দের নাও হতে পারে। তবে বাট বাস্তবতা হচ্ছে আপনাকে মেনে নিয়ে খেলা চালিয়ে যেতে হবে। তাই এখানে সিদ্ধান্ত কেমন ছিল সেটা নিয়ে আমি বলতে পারবো না। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। যোগ করেন কাজী ইনাম।

এর আগে এরপর আবাহনীর ড্রেসিংরুমে গিয়ে সুজনের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন মোহামেডান অধিনায়ক সাকিব। এরপর তিনি সোশ্যাল সাইটেও ভক্তদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। আজ শুক্রবার (১১ জুন) চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) মুখোমুখি হয়েছিল আবাহনী বনাম মোহামেডান। নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেইজে সাকিব লিখেছেন, ‘প্রিয় ভক্তবৃন্দ, এভাবে মেজাজ হারিয়ে একটা ম্যাচ নষ্ট করার জন্য এবং যারা ঘরে বসে খেলা দেখছিলেন তাদের কষ্ট দেওয়ার জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত। আমার মতো একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের এমন আচরণ করা কখনই উচিত নয়। আমি আমার দল, ম্যানেজম্যান্ট, টুর্নামেন্ট অফিসিয়ালস এবং সাংগঠনিক কমিটির কাছে এই মানবিক ভুলের জন্য ক্ষমা চাইছি। আশা করিছি, ভবিষ্যতে কখনই আর এমন কাজ করব না। সবাইকে ধন্যবাদ এবং ভালোবাসা।’

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: