প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

করোনার ডেলটা ভ্যারিয়েন্টে হাসপাতালে ভর্তির ঝুঁকি দ্বিগুণ

   
প্রকাশিত: ৯:০৯ পূর্বাহ্ণ, ১৬ জুন ২০২১

ছবি: ইন্টারনেট

করোনায় বিধ্বস্ত পুরো পৃথিবী। বিশ্বের সবচেয়ে ধনী থেকে সবচেয়ে গরীব, প্রতিটি দেশে দেখা গেছে করোনার প্রভাব। অর্থ কিংবা ক্ষমতার বলে কেউ এ থেকে মুক্তি পায়নি। প্রথম ঢেউয়ের পর করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে বিশ্ববাসী। অপরদিকে করোনার নতুন শক্তিশালী ভ্যারিয়েন্ট, যা আগুনে ঘি ঢেলেছে পুরোপুরি। গবেষণায় জানা গেছে, যুক্তরাজ্যের আলফা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে টিকা যতটা কার্যকর, করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ডেলটার বিরুদ্ধে তা কম কার্যকর।

যুক্তরাজ্যের করোনাভাইরাসের ‘আলফা ধরনের’ তুলনায় ভারতের ‘ডেলটা ধরনে’ আক্রান্তদের হাসপাতালে যাওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ হতে পারে। চিকিৎসা সাময়িকী ল্যানসেটে প্রকাশিত স্কটিশ এক গবেষণা প্রতিবেদনের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে রয়টার্স। প্রতিবেদনের বলা হয়, করোনাভাইরাসের আলফা ধরনে স্কটল্যান্ডে সংক্রমিত ১৯,৫৪৩ জনের মধ্যে ৩৭৭ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর ডেলটা ধরনে সংক্রমিত ৭,৭২৩ জনের মধ্যে ১৩৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

গবেষণায় জানানো হয়, আলফা ধরনের বিরুদ্ধে টিকা যতটা কার্যকর ডেলটা ধরনের বিরুদ্ধে তার চেয়ে কিছুটা কম কার্যকর।

স্ট্রাহক্লাইড বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ এপিডোমাইলজির অধ্যাপক ক্রিস রবার্টসন বলেন, “টিকা নেওয়ার ২৮ দিনের মধ্যে করোনা শনাক্ত হলে হাসপাতালে যাওয়ার ঝুঁকি ৭০% কমে যায়। ফাইজার–বায়োএনটেকের টিকার দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার দুই সপ্তাহ পরে ডেলটা ধরন থেকে ৭৯% সুরক্ষা পাওয়া যায়। অন্যদিকে, আলফা ধরন থেকে ৯২% সুরক্ষা পাওয়া যায়। অন্যদিকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ডেলটা ধরন থেকে ৬০% সুরক্ষা দেয়। আর আলফা ধরন থেকে ৭৩% সুরক্ষা দিতে পারে।

শাওন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: