প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

খন্দকার মোস্তাক আহমেদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

তাকে আমার কাছে ফিরিয়ে দিন, নয়তো আমাকে তার কাছে নিয়ে যান: ত্বহা’র স্ত্রী

   
প্রকাশিত: ৩:৪২ অপরাহ্ণ, ১৬ জুন ২০২১

সংবাদ সম্মেলনে আবু ত্বহা মুহাম্মদ আদনানের স্ত্রী

বর্তমান সময়ের সুপরিচিত ইসলামী আলোচক আবু ত্বহা মুহাম্মদ আদনানসহ চার জন নিখোঁজের ঘটনার ষষ্ঠ দিন পার হতে চলেছে। এরই মধ্যে তার সন্ধানের দাবিতে আজ বুধবার (১৬ জুন) আদনানের পরিবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটে দুপুর আড়াইটায় সংবাদ সম্মেলনটি আয়োজিত হয়। যেখানে নিখোঁজ আদনানের স্ত্রী সাবেকুন নাহার বক্তব্য রাখেন।

সাবেকুন নাহার সংবাদ সম্মেলনে কান্নারত অবস্থায় হাত জোর করে গণমাধ্যমকর্মীদের নিকট জাতি, প্রধানমন্ত্রী ও প্রশাসনের কাছে বিষয়টি তুলে ধরার অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, ‘আমার অনুরোধ আমার স্বামীকে আমার কাছে ফিরিয়ে দিন, না হলে আমাকে তার কাছে নিয়ে যান। উনি কোনো রাজনৈতিক দলের সাথে জড়িত নয়, একেবারে নিরীহ একজন মানুষ। হয়তো ওনাকে নিয়ে কোনো ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। উনি কোনো অপরাধ করে থাকলে তার শাস্তি হবে কিন্তু ওনাকে ফিরিয়ে দিতে সাহায্য করুন। আমি মানসিক ও শারীরিকভাবে বিপর্যস্ত এবং দুর্বল হয়ে পড়েছি। যদি আমার কথায় কোনো ভুল কিছু দৃষ্টিগোচর হয় আমাকে ক্ষমা করবেন।’

তিনি ওই রাতের অভিজ্ঞতা উল্লেখ করে বলেন, ‘সে নিখোঁজ হয়েছে ঢাকা থেকে। সর্বশেষ যোগাযোগ অনুযায়ী গাবতলী পার হয়ে মিরপুর ১১ নম্বরের কাছাকাছি কথা হয়েছে। সে বলেছে, ১০ বা ১৫ মিনিটের মধ্যে পৌঁছে যাবে এবং আমার সাথে লোকেশন শেয়ার করেন। এরপর থেকে তার ফোন ডিসকানেক্টেড হয়ে যায়। আমাকে টেলিফোনে বলেছিলেন, দুটি মোটরসাইকেলে দুজন তাদেরকে অনুসরণ করছিলো। একপর্যায়ে তাদের তারা আর দেখতে পাননি।’

আদনানের স্ত্রী সাবিকুন্নাহার বলেন, ধর্মীয় মতবাদ নিয়ে আলেমদের একটি পক্ষের সঙ্গে তার মতবিরোধ তৈরি হয়। এসব কারণে তিনি পরিচিত আলেমদের কাছে সাহায্য চেয়েও কোনো সাড়া পাননি। বরং সাধারণ মানুষ ও অনুসারীরা আদনানকে ফিরে পেতে অনলাইনে অনেক বেশি সোচ্চার।

তিনি আরো বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছি, র‌্যাব অফিসে গেছি, থানায় থানায় মামলার করার জন্য ঘুরেছি। আমার আর কি করার আছে আপনারা বলুন।’

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: