প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

থানায় জিডি, যা বললেন পরীমনি

   
প্রকাশিত: ১০:০৩ অপরাহ্ণ, ১৬ জুন ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

চিত্রনায়িকা পরীমনির বিরুদ্ধে ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাব লিমিটেড। ৮ জুন রাতে এ ঘটনা ঘটে। সিসিটিভি ক্যামেরা ফুটেজে, সেদিন রাত একটা ৩৯ মিনিটে এক ব্যক্তির সঙ্গে অল কমিউনিটি ক্লাবে আসেন পরীমনি। এর ঘন্টাখানেক পর সেখানে তাকে লক্ষ্যহীন ঘোরাফেরা করতেও দেখা গেছে। এরপর সাদা রঙের একটি গাড়িতে করে চলে যান তিনি।

গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের ঘটনাকে চক্রান্ত হিসেবে দেখছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। এ বিষয়ে পরীমনি একটি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এটা ফালতু অভিযোগ। আমার বিরুদ্ধে কোনো জিডি হয়নি। আমাকে নিয়ে অন্যরকম একটা চক্রান্ত চলছে।’

পুলিশ বলছে, সেদিন রাতে ৯৯৯ এ ফোন করে সাহায্য চান এই চিত্রনায়িকা। পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গুলশান থানায় জিডি করে পুলিশ। এর ৮ দিন পর ক্লাবে ভাংচুরের অভিযোগ আনলো কর্তৃপক্ষ। ৮ তারিখ রাত প্রায় একটার দিকে অলকমিউন্টি সেন্টারে আসে পরীমনিসহ আরেকজন। এর আগে কমিউনিটি সেন্টারের ভেতরে ছিলো পরীমনীর পরিচিত আরো একজন, যিনি এই ক্লাবের সদস্য।

এ বিষয়ে অল কমিউনিটি ক্লাব লিমেটেডের প্রেসিডন্ট কে এম আলমগীর ইকবাল বলেন, ক্লাব বন্ধ হওয়ার সময় হওয়ায় তাদের প্রথমে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। পরে ক্লাব সদস্যসের অনুরোধে তাদের ঢুকতে দেওয়া হয়। আধাঘন্টা তাদের সার্ভ করলেও পরে তাদের বের হয়ে যেতে বলা হয়। কিন্তু পরীমনী বের না হয়ে বিশৃঙ্খলা শুরু করে, ১৫ টা গ্লাস, ৯ টা স্টেসহ আরো কিছু হাফপ্লেট ভাঙ্গে। পরীমনিরাই ৯৯৯ এ ফোন দেয়, পুলিশ এসে তাদের বের হয়ে যেতে বলে। এ ঘটনায় ক্লাব সদস্যর বিরুদ্ধে সোকেস করা হয়েছে। কিন্তু পরীমনির বিরুদ্ধে কোনো জিডি করেনি বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত ৯ জুন উত্তরার পাশের বিরুলিয়ার ঢাকা বোট ক্লাবে পরীমনির উপর চড়াও হন নাসির। তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালানোর পাশাপাশি মারধরও করা হয়। এরপর থেকে আলোচনায় তুরাগ নদীর তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা ঢাকা বোট ক্লাব। পরীমনির অভিযোগের প্রেক্ষিতে নাসিরকে গ্রেপ্তারের পর রিমান্ডে নিয়েছে ডিবি।

নাঈম/নিএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: