প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

লন্ডনের সড়কে আমিরাতের মুসলিম মানবাধিকারকর্মীর রক্তাক্ত লাশ

   
প্রকাশিত: ১:২৬ অপরাহ্ণ, ২১ জুন ২০২১

নিহত আলা আল-সিদ্দিক

আরব আমিরাতের প্রখ্যাত মুসলিম মানবাধিকারকর্মী অধ্যাপক আলা আল-সিদ্দিক লন্ডনে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। খবর ডেইলি সাবাহ ও আলজাজিরার। আমিরাতে গ্রেফতারের আশঙ্কায় নিজের দেশ ছেড়ে পালিয়ে লন্ডনে চলে গিয়েছিলেন আলা। সেখানে তার বাবা ও অন্যান্য বন্দির মুক্তির দাবিতে তিনি দীর্ঘদিন ধরে প্রচার চালিয়ে আসছিলেন। শনিবার লন্ডনের সড়ক থেকে তার রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

আলজাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আরব দেশগুলোর প্রথিতযশা মানবাধিকার গ্রুপ আল কুস্তের নির্বাহী পরিচালক পদে ছিলেন আলা। অলাভজনক এই মানবাধিকার প্রতিষ্ঠানটি আমিরাতসহ গোটা আরব বিশ্বে জনগণের স্বাধীনতার পক্ষে কাজ করে। এই অধ্যাপক আমিরাত রাজতন্ত্রের কড়া সমালোচক হিসেবেও পরিচিত।

আলার অকাল ও হঠাৎ মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে মানবাধিকারকর্মীদের মাঝে। আল কুস্তের কর্মীরা তার আত্মার শান্তি কামনা করেছেন। আল আল-সিদ্দিকের বাবা মোহাম্মদ সিদ্দিকও একজন স্বনামধন্য অধিকারকর্মী। ২০১৩ সাল থেকে তিনি আমিরাতে কারাবন্দি।

এক শোকবার্তায় বলেন সৌদি আরবের বিখ্যাত মানবাধিকারকর্মী আবদুল্লাহ আল আওদা। বলেন, ‘আজ আমিরাতের বিখ্যাত গবেষক ও সৎ অধ্যাপক আলা আল-সিদ্দিক দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়েছেন। তার বাবাও আমিরাতের কারাগারে বন্দি’

দোহা নিউজের বরাত দিয়ে ডেইলি সাবাহর খবরে বলা হয়েছে— আলা ও তার স্বামী ২০১২ সালে কাতারে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নেন। সেই সময় তারা সেখানে আত্মীয়ের বাসায় থাকতেন। তার কাতারে অবস্থানের কারণে দেশটির সঙ্গে আমিরাতের দূরত্ব সৃষ্টি হয়। ২০১৮ সালে কাতারের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আবদাল রাহমান বিন জসীম আল থানি বলেন, আলা আল-সিদ্দিক সে দেশে অবস্থান করায় আমিরাতের সঙ্গে তাদের সম্পর্কের অবনতি হয়েছে। পরে আবুধাবি আলাকে তাদের হাতে তুলে দিতে কাতারকে চাপ দেয়। এমতাবস্থায় লন্ডন চলে যান আলা।

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: