স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ১৪ জুলাই ২০২১, ০৩:২৮ এএম

নরসিংদীর শিবপুরে ৯ মাস আগে হাজেরা আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূকে মারপিট ও নির্যাতন করে হত্যা মামলার পলাতক আসামী স্বামী বেদন মিয়া (৩৮) কে গাজীপুর থেকে গ্রেপ্তার করেছে নরসিংদীর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) বিকালে (পিবিআই) নরসিংদীর পুলিশ সুপার মো: এনায়েত হোসেন মান্নান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

নিহত হাজেরা শিবপুর উপজেলার বান্দারগাঁও গ্রামের বেনু মিয়া মেয়ে। পিবিআই পুলিশের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শিবপুর থানার ১০ নং মামলার পেনাল কোড ৩০২/৩৪ তাং ০৮/০৩/২০২১ এর মূল আসামী নিহতের স্বামী বেদন মিয়াকে গাজীপুরের নাওজোরা ইসলামপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে অত্র মামলার মূল রহস্য উৎঘাটন করা হয়েছে। আসামী বেদন জিজ্ঞাসাবাদকালে অত্র মামলার ভিকটিমকে ভয়াবহ নির্যাতনের কথা স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারা স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে ।

ঘটনার বিবরণী,মামলার এজাহার ও পিবিআই পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শিবপুর উপজেলার মিয়ারগাঁও খাল পাড় পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত ইব্রাহীম মিয়ার ছেলে বেদন মিয়ার সাথে একই উপজেলার বান্দারগাঁও গ্রামের বেনু মিয়া মেয়ে হাজেরা আক্তারের বিয়ে হয়। গেল বছরের ২০ অক্টোবর রাতে স্বামীর বাড়ীতে পারিবারিব কলোহের জের ধরে স্বামী বেদন ও শাশুড়ি মিনারা বেগম হাজেরাকে প্রচন্ড মারপিট করে নির্যাতন করে। পরে হাজেরা রাতভর অচেতন অবস্থা পরে থাকলে স্বামী বেদন ও তার শ্বাশুরি হাজেরাকে দাফনের উদ্যোগ নেয়। এ দিকে স্বাভাবিক ভাবে হাজেরার মৃত্যু হয়েছে বলে তার পিতার বাড়ীতে সংবাদ দেয় আসামী বেদনের পরিবার ।

পরে মৃত হাজেরা কে দেখতে তার আত্মীয়-স্বজন স্বামীর বাড়িতে আসলে অচেতন অবস্থায় হাজেরা শ্বাস নিচ্ছে দেখতে পায়। পরে হাজেরাকে বাঁচাতে দ্রæত শিবপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ নিয়ে যায় তার আত্মীয়-স্বজন । হাজেরার অবস্থার অবনতি দেখে কর্ত্যবরত ডাক্তার নরসিংদী সদর হাসপাতালে হাজেরাকে রেফার্ড করে। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার। এ ঘটনার পর নিহত হাজেরার পিতা বেনু মিয়া বাদী হয়ে শিবপুর মডেল থানায় তার স্বামী বেদন ও শ্বাশুড়িকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

পরর্বতীতে সঠিক তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে পুলিশ হেড কোয়ার্টার নরসিংদী পিবিআই পুলিশেকে এ মামলা হস্তান্তর করে। পরে নরসিংদীর পিবিআই পুলিশ সুপার মোঃ এনায়েত হোসেন মান্নানের দিক নির্দেশনায় পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) জামাল উদ্দিন খান ও পিবিআই টিম লাগাতার অভিযানের মাধ্যমে গাজীপুরের নাওজোরা ইসলামপুর এলাকা থেকে আসামী বেদন মিয়াকে গ্রেপ্তার করে এ মামলার মূল রহস্য রহস্য উৎঘাটন করে।

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: