প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

কঠোর লকডাউনের মেয়াদ বাড়তে পারে আরও ১০ দিন

   
প্রকাশিত: ১১:১৫ পূর্বাহ্ণ, ৩১ জুলাই ২০২১

ফাইল ছবি

দেশের করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ২৩ জুলাই থেকে চলছে কঠোর লকডাউন। এসময়ে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহন, শিল্প-কারখানা ও শপিংমল। ইতিমধ্যেই কঠোর লকডাউনের এক সপ্তাহের বেশি সময় অতিবাহিত হলেও সংক্রমণ ও মৃত্যু হ্রাসের কোনো লক্ষণ নেই। গত কয়েকদিন ধরে দেশে গড়ে দুই শতাধিক করোনা রোগীর মৃত্যু হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে চলমান কঠোর বিধিনিষেধ বা লকডাউনের মেয়াদ আরো বাড়তে পারে বলে জানা গেছে।

আগামী ৫ আগস্টের পরও দুই সপ্তাহ কঠোর বিধিনিষেধ অব্যাহত রাখার সুপারিশ করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সুপরিশে ৫ আগস্টের পর আরো ১০ দিন লকডাউন বৃদ্ধির কথা বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম বলেন, ‘আমরা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের বৈঠকে চলমান বিধিনিষেধ আরো ১০ দিন বাড়ানোর সুপারিশ করেছি। যদিও এ ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি।’

তবে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, ‘জীবন-জীবিকার সমন্বয় করে’ কিছু বিষয় শিথিল করে বিধিনিষেধ অব্যাহত রাখার চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। সেক্ষেত্রে চলমান লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়তে পারে। এরই মধ্যে সরকার রপ্তানিমুখী সব শিল্প ও কলকারখানা খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামীকাল রবিবার (০১ আগস্ট) সকাল ৬টা থেকে এসব কারখানা বিধিনিষেধের আওতাবহির্ভূত থাকবে। গতকাল শুক্রবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

জরুরি প্রয়োজন ও অর্থনৈতিক ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য রপ্তানিমুখী শিল্পকারখানা খুলে দেওয়া হলেও সেগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। অন্যথায় সামনে মহাবিপদ অপেক্ষা করছে বলে সতর্ক করেছেন তাঁরা।

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: