প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

রৌমারী-চিলমারী নৌরুটে যাত্রীদের ভিড়

   
প্রকাশিত: ৬:৩২ অপরাহ্ণ, ৩১ জুলাই ২০২১

ছবি: প্রতিনিধি

আবু সাইদ কাকন, রৌমারী (কুড়িগ্রাম) থেকে: রৌমারী-চিলমারী নৌরুটে যাত্রীদের উপচে পরা ভিড়। শিল্প কারখানা আগামী ১লা আগস্ট থেকে খোলার সিদ্ধান্ত হওয়ায় কঠোর লকডাউন উপেক্ষা করে রংপুর,লালমনিরহাট,গাইবান্ধা,কুড়িগ্রাম, নীলফামারী জেলার যাত্রীদের ঢল নেমেছে চিলমারী নৌকা ঘাটে। রৌমারী-রাজিবপুর হয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কর্মস্থলে ফেরার উদ্দেশে ছুটে চলছে তারা।শনিবার (৩১ জুলাই) সকাল ১০টার রৌমারী নৌকা ঘাটে গিয়ে দেখা যায় শতশত মানুষ সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করার কথা থাকলেও নেই কোনো স্বাস্থ্যবিধির বালাই।

কর্মস্থলে ফেরার জন্য যে যেভাবে পারছে সেভাবে যাওয়ার চেষ্টা করছে, একশ টাকার ভাড়ার বিপরীতে অতিরিক্ত আরো গুনতে হচ্ছে অনেক টাকা। দুর পাল্লার বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ইজিবাইক, সিএনজি,অটোরিকশা,ভটভটি, পিকআপ ভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহনে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে যাচ্ছে চাকরি বাঁচাতে।একাধিক গার্মেন্টস কর্মীর সাথে কথা হয় তারা বলেন, রাতে অফিসের এডমিন ফোন দিয়েছে অফিস করতে হবে ১ তারিখ। সঠিক সময়ে অফিসে যেতে না পারলে চাকরি চলে যাবে। এডমিন এমন কথা বলায় এখন কষ্ট করেই গ্রামের বাড়ি থেকে রওনা হয়েছি। চাকুরি বাচাঁতে শত কষ্ট করে হলেও ঢাকায় যাইতে হবে।তা না হলে পরিবার নিয়ে না খেয়ে মরতে হবে।বিভিন্ন জেলার মানুষ রৌমারী উপজেলার ভেতর দিয়ে চলাচল করার কারণে রৌমারী উপজেলায় করোনা সংক্রমণ বাড়ছে এবং সংক্রমণের ঝুঁকি আরোও বেড়ে গেলো।

রৌমারী,চিলমারী ও রাজিবপুর ঘাটের ইজারাদার মাহতাব হোসেন বলেন, লকডাউনের কারণে নৌকা বন্ধ রাখা হয়েছিলো। ঘাটে ঢাকাগামী যাত্রীদের ভিড় নৌকা না চালালে তারা মনে সাতঁরায়ে পার হবে এমন অবস্থা। তাই সীমিত আকারে কয়েকটা নৌকা চলাচল করছে। এ ব্যাপারে রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল ইমরান জানান, বিষয়টি জেনেছি,জেলা প্রশাসক স্যারের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: