প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আব্দুল ওয়াদুদ

বগুড়া প্রতিনিধি

স্ত্রী-মেয়ের লাশের পাশে বসেই কাঁদছিল আলতাব, শুধু তাকিয়ে দেখল জনতা

   
প্রকাশিত: ১২:২৮ পূর্বাহ্ণ, ২ আগস্ট ২০২১

ছবি: প্রতিনিধি

বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে শিবগঞ্জ উপজেলায় মোটরসাইকেল থেকে পড়ে বাস চাপায় মা-মেয়ে নিহত হয়েছেন। নিহতরা হচ্ছেন সোনাতলা উপজেলার কুশার ঘোপ গ্রামের গ্রামীন ব্যাংক কর্মকর্তা আলতাব আলীর স্ত্রী শিমু বেগম (৪৫) ও মেয়ে বগুড়া পুলিশ লাইন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেনীর ছাত্রী আফরিন জাহান অমি (১৫)। রবিবার (১ আগষ্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় কাগইলের রাস্তা নামক স্থানে দুর্ঘটনাটি ঘটে। আলতাব আলী গাইবান্ধা জেলার কোচাশহরে গ্রামীন ব্যাংকে চাকরি করেন।

জানাযায়, মেয়ে অমি বগুড়ায় লেখাপড়া করার কারনে তার পরিবার বগুড়া শহরের লতিফপুর মধ্যপাড়ায় বসবাস করতেন।  রবিবার বিকেলে আলতাব আলী তার গ্রামের বাড়ি থেকে স্ত্রী সন্তানকে শহরের বাসায় পৌঁছানোর জন্য মোটরসাইকেল যোগে রওনা হন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে তিনি বগুড়া- রংপুর মহাসড়কে শিবগঞ্জ উপজেলার চন্ডিহারা বন্দরের অদুরে কাগইলের রাস্তা নামক স্থানে পৌছিলে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে মা-মেয়ে মোটরসাইকেল থেকে মহাসড়কে পড়ে যায়।

এসময় পিছন থেকে বগুড়াগামী একটি বাস চাপা দিলে মা-মেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান।মোটরসাইকেল চালক আলতাব আলী আহত হন। দুর্ঘটনার পর পরই বাসটি দ্রুত গতিতে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আলতাব আলী স্ত্রী ও মেয়ের মরদেহ নিয়ে গ্রামের বাড়িতে চলে যান। বগুড়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার বেলজার হোসেন বলেন খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যান। অনেক সময় অপেক্ষা করার পর পুলিশ না পৌছিলে মরদেহ স্বজনে কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ফরমান/মস

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: