প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

প্রধানমন্ত্রী দৃঢ়তার সাথে করোনা মোকাবিলায় কাজ করে যাচ্ছেন- খাদ্যমন্ত্রী

   
প্রকাশিত: ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ, ২ আগস্ট ২০২১

ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দৃঢ়তার সাথে করোনা মোকাবিলায় কাজ করে যাচ্ছেন। দেশের মানুষকে করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত রাখতে তিনি ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করছেন। আগামী ৭ আগস্ট থেকে দেশের প্রত্যেক ইউনিয়নে ভ্যাকসিন দেওয়ার যে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত তিনি নিয়েছেন তা সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নে সকলকে ভূমিকা রাখতে হবে বলে মন্তব্য করেন খাদ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র মজুমদার। গতকাল রবিবার (১ আগস্ট) নওগাঁ জেলার নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ‘উপজেলার ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন ও করোনার ঊর্ধ্বগতি রোধকল্পে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় খাদ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে শোকাবহ আগস্টের প্রথম দিবসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ঘাতকের হাতে নির্মম হত্যাকান্ডের শিকার সকলের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, উপজেলার প্রতি ইউনিয়নে স্বেচ্ছাসেবক কমিটি গঠন করা হয়েছে। জীবন বাজি রেখে স্বেচ্ছাসেবক টিম করোনা মোকাবিলায় কাজ করছে। স্বাস্থ্য বিভাগের ভ্যাকসিন কার্যক্রমকে শতভাগ সফল বাস্তবায়নে  জনপ্রতিনিধিগণকে এ সকল স্বেচ্ছাসেবকদেরকে সাথে নিয়ে কাজ করতে হবে। সকলকে ভ্যাকসিনের আওতায় এনে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্য সফল করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সকলকে ভ্যাকসিন দেয়ার আগ পর্যন্ত মাস্ক পরা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা সবচেয়ে জরুরি। যারা মাস্ক পরতে চায় না, তাদের মাস্ক পরানো এবং স্বাস্থ্যবিধি মানতে উদ্বুদ্ধ করা চ্যালেঞ্জিং হলেও সকলের প্রচেষ্টায় এটা বাস্তবায়ন করতে হবে। ভ্যাকসিন নিয়ে কোন ধরনের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ারও আহ্বান জানান তিনি। মতবিনিময় সভায় উপজেলার বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, গণমাধ্যমকর্মীগণ এবং বিভিন্ন ওয়ার্ডের স্বেচ্ছাসেবকগণ অংশ নেন।

পরে তিনি করোনা মোকাবিলায় সম্মুখসারির যোদ্ধাদের মাঝে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেন। এর আগে খাদ্যমন্ত্রী নিয়ামতপুর এলএসডি পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় খাদ্যমন্ত্রণালয় সরকারি ক্রয়ের মাধ্যমে মজুদ বাড়াচ্ছে। সরকারি গুদামে এখন রেকর্ড পরিমাণ খাদ্য মজুদ রয়েছে। এছাড়া বাজারে সরবরাহ বাড়াতে বেসরকারিভাবেও আমদানির পদক্ষেপ নিচ্ছে। এলএসডি পরিদর্শনকালে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক রাজশাহী জি এম ফারুক হোসেন পাটওয়ারী উপস্থিত ছিলেন।

ফরমান/মস

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: