প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মো. ইলিয়াস

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ফেসবুকে মাহিয়া মাহির ইঙ্গিতপূর্ণ পোস্ট

   
প্রকাশিত: ১২:৩২ পূর্বাহ্ণ, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

বিয়ে করেছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। চলতি বছরেই প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর দ্বিতীয়বারের মতো বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন এই নায়িকা। ফেসবুকে ছবি প্রকাশ করে নিজের দ্বিতীয় বিয়ের কথা জানিয়ে চমকে দিয়েছেন তিনি। রোববার দিনগত রাত ১২টা ৫ মিনিটে কামরুজ্জামান সরকার রাকিবের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন নায়িকা।

রকিব সরকারের আবাস গাজীপুরে। চিত্রনায়িকা মাহিকে তিনি গাজীপুরেই বিয়ে করেছেন। রকিব বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য। এছাড়াও তিনি গাড়ি ব্যাবসায়ী, ‘সনি রাজ কার প্যালেস’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে তার। এক সময় ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন রাকিব।

রাকিবের সঙ্গে মাহির বিয়েতে শুভকামনা জানিয়েছেন তার আগের স্বামী পারভেজ মাহমুদ অপু। ২০১৬ সালে বিয়ের পর মাহি ও অপু প্রায় পাঁচ বছর সংসার করেছেন। চলতি বছরের মে মাসে মাহি বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন।

বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করেন মাহি। তার ক্যাপশনেই তিনি ইঙ্গিতপূর্ণ কথা লিখেছেন।

মাহি লেখেন, যখন আপনি কাউকে আপনার জীবন থেকে বাদ দেন, তখন তারা মানুষকে পুরো গল্পটি বলবে না, তারা কেবল তাদের সেই অংশটি বলবে, যা আপনাকে খারাপভাবে প্রকাশ করবে এবং তাদেরকে নির্দোষ দেখাবে।

এর আগে বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসায় সাবেক স্বামী ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপু মাহির নতুন জীবনের জন্য শুভকামনা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মাহির নতুন জীবনের জন্য শুভকামনা। আমার চাওয়া তারা ভালো থাকুক। তার জন্য আমার অনেক অনেক দোয়া ও শুভ কামনা।

তিনি আরও বলেন, মাহির দ্বিতীয় স্বামী রাকিবকে আমি আগে থেকেই চিনি। মাহি আমার সাথে তাকে বন্ধু হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে। আমরা বিভিন্ন সময় একসাথে ঘুরেছি। রাকিবের প্রথম ঘরে এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে। সবকিছু জেনেই মাহি বিয়ে করেছেন। বর্তমানে আগের ঘরের সন্তানদের সঙ্গেই আছেন মাহি।

উল্লেখ্য, অপুকে ভালোবেসে ২০১৬ সালে বিয়ে করেন মাহি। চলতি বছরের ২২ মে পাঁচ বছরের বৈবাহিক সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দেন এ অভিনেত্রী। এরপরই রাকিবের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর বিষয়টি আলোচনায় আসে।

নাঈম/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: