ফের ডাউন ফেসবুক-ইনস্টাগ্রাম

   
প্রকাশিত: ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ, ৯ অক্টোবর ২০২১

ছবি : সংগৃহীত

শুক্রবার মধ্য রাতের পর আবারও ডাউন পাওয়া যাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক মেসেঞ্জার ও ইনস্টাগ্রামে। বিষয়টি স্বীকার করেছেন ফেসবুকের একজন মুখপাত্রও। যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্টকে তিনি বলেন, কিছু মানুষ আমাদের অ্যাপস ও বিভিন্ন সেবায় প্রবেশে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। বিষয়টি নিয়ে আমরা অবগত আছি। যত দ্রুত সম্ভব স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনতে কাজ করছি। যেকোনো ধরনের অসুবিধার জন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।

পূর্ব ইউরোপীয় সময় শুক্রবার বিকেল ৩টা নাগাদ অনেকে ইনস্টাগ্রামে ঢুকতে না পারার সমস্যার কথা জানিয়েছেন। আর ফেসবুক ডাউন পাওয়ার রিপোর্ট করেছেন প্রায় ২ হাজার ব্যবহারকারী। ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামের অ্যাপে প্রবেশে সমস্যা হচ্ছে এ অভিযোগ জানাতে অনেকে বেছে নেন টুইটার। বিষয়টি নিয়ে টুইটে হতাশাও প্রকাশ করেন অনেকে।

এর আগে সোমবার (৪ অক্টোবর) প্রায় ৬ ঘণ্টা স্থগিত থাকার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইনস্টাগ্রাম সচল হয়েছে। ফেসবুকের বরাতে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি ও রয়টার্স বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। বাংলাদেশ সময় রাত পৌনে ১০টার পর থেকে জনপ্রিয় এই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে বার্তা আদান–প্রদান বন্ধ হয়ে যায়। এতে বিপাকে পড়েন বিশ্বজুড়ে লাখো ব্যবহারকারী। এরপর মঙ্গলবার ভোর পৌনে ৪টার দিকে সচল হয় ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম। ডাউন হয়ে যাওয়া যোগাযোগমাধ্যমগুলো ফেসবুকের মালিকানাধীন। রাত সাড়ে ৪টার দিকে এই টুইট বার্তায় সার্ভার সচল হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

ঠিক কী কারণে সমস্যা দেখা দিয়েছিল, তা এখনো পরিষ্কার নয়। ফেসবুকের পক্ষ থেকেও ত্রুটির কারণ সম্পর্কে কিছু বলা হয়নি। তবে কারিগরি বিশেষজ্ঞরা ডোমেইন নেম সিস্টেম বা ডিএনএস ত্রুটি ছিল বলে ধারণা করছেন। আবার কারও মতে, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ সবই একটি বিজিপি কনফিগারেশনের সমস্যার কারণে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, এক টুইটবার্তায় সার্ভার জটিলতার বিষয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে ফেসবুক। টেক জায়ান্টটির প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা মাইক শ্রোফার বলেছেন, ফেসবুকের শতভাগ পরিষেবা পেতে আরও কিছু সময় লাগতে পারে। এছাড়া ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ তাদের পরিষেবা চালু হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে এক টুইটার বিবৃতি দিয়েছে। এতো দীর্ঘ সময় ধরে সার্ভার ডাউন হওয়া ঘটনা বিরল। সর্বশেষ ২০১৯ সালে ফেসবুক ও অন্যান্য অ্যাপে ১৪ ঘণ্টার মতো এ ধরনের সমস্যা হয়েছিল।

নাঈম/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: