প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আব্দুল লতিফ রঞ্জু

পাবনা প্রতিনিধি

পাবনায় ‘ভুয়া দলিল’ রেজিষ্ট্রি করতে এসে বৃদ্ধ গ্রেফতার

   
প্রকাশিত: ৭:৫৭ অপরাহ্ণ, ১৩ অক্টোবর ২০২১

পাবনার চাটমোহর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে ভুয়া দলিল রেজিষ্ট্রি করতে গিয়ে আব্দুল হামিদ (৫৬) নামের এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আব্দুল হামিদ উপজেলার ফৈলজানা ইউনিয়নের মৃত. রাজ্জাক মুন্সির ছেলে। বুধবার সকালে তার বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলার পরে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে থানা পুলিশ।

জানা গেছে, প্রতারক আব্দুল হামিদ ফৈলজানা ইউনিয়নের মারমবকু মৌজার ৭১ শতাংশের একটি জমির প্রকৃত দলিল দস্তাবেজ বেশ কয়েকবছর আগে কৃষি ব্যাংক চাটমোহর শাখায় জমা দিয়ে মোটা অংকের কৃষি লোন গ্রহন করেন। সেই জমিটি গোপনে বিক্রি করার জন্য অত্র ইউনিয়ন তহশীলদারকে ম্যানেজ করে ভুয়া দলিল ও খাজনা খারিজ করে চাটমোহর রেজিষ্ট্রি অফিসে আমিনুল ইসলাম নামের জনৈক মহুরীর মাধ্যমে সাব-রেজিষ্টারের নিকট জমির কাগজ সাবমিট করা হলে সম্পুর্ণ কাগজ নকল প্রতিয়মান হলে আব্দুল হামিদকে আটক করে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পরে পুলিশ এসে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। তবে অজ্ঞাত কারনে ফৈলজানা ইউনিয়নের তহশীলদার ও সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল সম্পাদন কারী মহুরীকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়নি।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে চাটমোহর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের অফিস সহকারি মামলার বাদী নূরুল হুদা বিডি২৪লাইভকে জানান, আব্দুল হামিদ নামের ঐ ব্যক্তি তার একটি জমির কাগজ অনেক আগেই ব্যাংকে জমা দিয়ে লোন গ্রহন করেন। এরপর এখন তিনি ঐ জমিটি বিক্রির উদ্দেশ্যে ভুয়া দলিল ও খারিজ নকল করে রেজিষ্ট্রি করার মূহুর্তে স্যারের নিকট ধরা পরে যায়। তাকে আটক করে থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করার পরে সাব রেজিষ্ট্রি স্যারের নির্দেশে আমি বাদী হয়ে মামলা করি।

ঘটনার বিষয়ে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আনোয়ার হোসেন বিডি২৪লাইভকে জানান, জমির মুল কাগজ ব্যাংকে দিয়ে লোন নিয়েছেন এই ব্যক্তি। এবার ঐ জমির নকল কাগজ তৈরি করে জমি বিক্রির উদ্দেশ্যে সাব রেজিষ্ট্রি অফিসে দলিল সাবমিট করলে তার প্রতারণার বিষয়টি ধরা পরে যায়। পরে অফিস থেকে আমরা খবর পেয়ে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি। আটককৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলার পরে বুধবার সকালে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ফরমান/মস

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: