প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

এহসানুল হক মিয়া

ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ

   
প্রকাশিত: ৫:৩৮ অপরাহ্ণ, ২৬ জুলাই ২০২২

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ কামাল আহমেদের ঔদ্ধত্যের শিকার হয়েছেন স্থানীয় ৩ গণমাধ্যম কর্মী। বেআইনি ভাবে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় স্থানান্তরসহ বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে বক্তব্য চাওয়ায় তিনি ক্যাডারবাহিনী দিয়ে হেনস্তা করেছেন দৈনিক ভোরের দর্পণের উপজেলা প্রতিনিধি এস,এম রুবেল, সাপ্তাহিক মানব দর্পণের সম্পাদক তারিকুল ইসলাম ও স্টাফ রিপোর্টার মুকুল কুমার বোসকে।

রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরের এ ঘটনায় একই দিন সন্ধ্যায় জরুরী সভা ডেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন বোয়ালমারীর সাংবাদিক সমাজ।

জানা যায়, সরকার নির্ধারিত অফিস বাদ দিয়ে ভিন্ন জায়গায় বসে পরিষদের কার্যক্রম চালানো, টি, আর, কাবিখা প্রকল্পে, ভাতার কার্ড বিতরণে, ট্যাক্স আদায়ে ও সনদ প্রদান সহ পরিসেবার বিভিন্ন খাতে চেয়ারম্যান কামালের বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম-দূর্নীতির অভিযোগ উঠায় তা সরাসরি অনুসন্ধানে নামেন ঐ তিন সংবাদ কর্মী। তারা মাঠ পর্যায়ে তথ্য অনুসন্ধানের কার্যক্রম শেষে চেয়ারম্যান কামাল আহমেদের বক্তব্য চাইতে গেলে তিনি তেলে-বেগুনে জ্বলে উঠেন। সাংবাদিকদের নিয়ে কটু মন্তব্য করেন। সেই সাথে ফোন করে ডেকে আনেন একদল যুবককে। যারা এলাকায় চেয়ারম্যানের ক্যাডারবাহিনী হিসাবে পরিচিত।

এই বাহিনীর সদস্যরা তিন সাংবাদিককে টেনেহিঁচড়ে নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে সংবাদকর্মীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, হুমকী-ধামকী ও ভয়ভীতি দেখায় ক্যাডারের দল। বলা হয়, কামাল চেয়ারম্যানের নামে আজেবাজে কিছু লিখলে মিথ্যা চাঁদা বাজি দিয়ে তোদের জেলে ভরে দেয়া হবে। সাবধান হয়ে যা। এরপর তিন সাংবাদিককে এক কাতারে দাঁড় করিয়ে তাদের ছবি ও ভিডিও ধারণ করে বলা হয়-শুধু মামলা নয়, চাঁদাবাজ হিসাবে এই ছবি ছেড়ে দেয়া হবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

এ ঘটনায় সন্ধ্যার পর বোয়ালমারী পৌর ভবনে এক জরুরি সভায় মিলিত হন গণমাধ্যমকর্মীরা। পৌর মেয়র সাংবাদিক সেলিম রেজা লিপনের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে সাপ্তাহিক বোয়ালমারী বার্তার সম্পাদক এ্যাডঃ কোরবান আলী, বাংলাদেশ প্রতিদিনের লিয়াকত হোসেন লিটন, সমকালের কাজী আমিনুল ইসলাম, সকালের সময়ের মোঃ জাকির হোসেন, ঢাকা টাইমস এর আমীর চারু বাবলু, আমাদের সময়ের খান মোস্তাফিজুর রহমান, যমুনা টিভির মহব্বত চৌধুরী, কালের কন্ঠের মোঃ নুরুল ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। সভায় চেয়ারম্যান কর্তৃক সাংবাদিক হেনস্তার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: