সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত তিন জাবি শিক্ষার্থীর স্মৃতি রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

   
প্রকাশিত: ৫:০১ অপরাহ্ণ, ২৮ জুলাই ২০২২

মো. আবু দারদা লিমন, জাবি প্রতিনিধি: সাভারে সড়ক দুর্ঘটনায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের(জাবি) সাবেক শিক্ষার্থী এবং পরমাণু শক্তি কমিশনের তিন বিজ্ঞানীর মৃত্যুর ঘটনায় ন্যায়বিচার ও স্মৃতি রক্ষার দাবীতে মানববন্ধন করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে এ মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে দর্শন বিভাগের ৪১ ব্যাচের শিক্ষার্থী জোবায়ের হোসেনের সঞ্চালনায় বক্তারা সড়ক দূর্ঘটনায় দোষীদের বিচারসহ তিন দফা দাবী উত্থাপন করেন। অন্যান্য দাবীগুলো হলো- নিহত শিক্ষার্থীদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ প্রদান এবং তাদের স্মৃতি রক্ষার্থে উদ্যোগ গ্রহণ।

ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ‘এ মেধাবী শিক্ষার্থীদের মৃত্যুতে দেশ বঞ্চিত হয়েছে। আমরা সবাই বঞ্চিত হয়েছি৷ সড়ক দূর্ঘটনায় দায়ী বাসটির রুট পারমিট ছিল না। যাদের উপর সড়কের নিরাপত্তার দায়িত্ত্ব তাদের আরো দায়িত্ববান হওয়া উচিত যেন ভবিষ্যতে এ ধরণের ঘটনা না ঘটে৷’

পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘সাভারের ঘটনায় যে বাসটি ভাড়া করা হয়েছিল সেটির ফিটনেস ছিল না। এর দায়ভার সড়ক কর্তৃপক্ষের। আমরা এখন রাস্তায় দাড়িয়েছি হয়তো। দোষীদের বিচার না হলে পরে রাস্তা ব্লক করে দাড়াতে বাধ্য হবো।’

ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. হাসান ইমাম বলেন, ‘আজ আমরা ভারাক্রান্ত হৃদয় নিয়ে দাঁড়িয়েছি। আমাদের দাবী বিচার চাওয়া নয়। আজকে রাষ্ট্রব্যবস্থা, সড়ক কর্তৃপক্ষের নিজেদেরই এ দূর্ঘটনায় বিচারের জন্য উদ্যোগী হওয়া দরকার ছিল। কিন্তু তাদের কোন কার্যক্রম আমাদের চোখে পড়ে নি। এ মেধাবীরা বেঁচে থাকলে দেশের জন্য অনেক কিছু করতে পারতো৷ কিন্তু তাদের সে মূল্যায়ন কোথায়?’

তিনি আরো বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করার জন্য আমরা শুধু মানববন্ধনে সীমাবদ্ধ থাকব না। এ দাবীতে সারা দেশের সবাই একদিন জেগে উঠবে।’

মানববন্ধনে পদার্থবিজ্ঞান ছাত্র সংসদের ভিপি মোস্তাফিজুর রহমান সনেট বলেন, ‘আজ আমাদের মেধাবীরা সড়কে এভাবে মারা গেলে দেশ কিভাবে মাথা উঁচু করে দাড়াবে? তাদের ক্ষতিপূরণ তো দূরের কথা বিচারও করা হয়নি। এ মেধাবী শিক্ষার্থীদের নামে আণবিক শক্তি কমিশনের ল্যাব, ভবনের নামকরণের মাধ্যমে তাদের স্মরণীয় করে রাখার দাবী জানাই।’

মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. শারমীন সুলতানা, সহযোগী অধ্যাপক ড. বদরুন্নাহার, সহকারী অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন, সহকারী অধ্যাপক তানভীর ইসলাম রাজীব প্রমুখ। এসময় বিভিন্ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জুন ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সাভারের বলিয়ারপুর এলাকায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি গবেষণা প্রতিষ্ঠানের একটি বাস। সেখানে জাবির সাবেক শিক্ষার্থী ও কমিশনের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. আরিফুজ্জামান, ফারহানা ইসলাম ও পূজা সরকার মৃত্যুবরণ করেন৷

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: