প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

নুরুল আমিন

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি

রাঙ্গামাটিতে অনলাইনে পাওয়া যাবে উত্তরাধিকার সনদ

   
প্রকাশিত: ৫:২২ অপরাহ্ণ, ২ আগস্ট ২০২২

জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিতে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসন অনলাইনে উত্তরাধিকার সনদ প্রদান পদ্ধতি চালু করতে যাচ্ছে। আগামী ৫ আগস্ট বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এর জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের শেষে উত্তরাধিকার সনদ প্রদান ওয়েব এপ্লিকেশনটির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করা হবে। এরপর থেকে রাঙ্গামাটিতে অনলাইনে পাওয়া যাবে উত্তরাধিকার সনদ। মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দুপুরে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে অনলাইনে উত্তরাধিকার সনদ প্রদান সিস্টেমের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানা গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে, রাঙ্গামাটিতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের উন্নয়ন সাধনের মাধ্যমে সেবা সহজিকরণে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। এ জেলার উপজেলাসমূহ খুবই দুর্গম এবং প্রান্তিক দরিদ্র জনগোষ্ঠির বসবাস। এ অঞ্চলে বসবাসরত জনগোষ্ঠির উত্তরাধিকার সূত্রে জমির মালিকানা পরিবর্তনসহ নানাবিধ কার্যক্রমে জেলা প্রশাসক কর্তৃক প্রদত্ত উত্তরাধিকার সনদের প্রয়োজন হয়।

বর্তমানে এ সনদের জন্য একজন নাগরিককে দুর্গম এলাকা হতে অনেক কষ্ট করে জেলা সদরে এসে আবেদন করতে হয়। এছাড়াও সম্পূর্ণ কাজটি সম্পাদনে বেশ কয়েকবার জেলা ও উপজেলা সদরে আসতে হয়। তাই এ সমস্যাটি বিবেচনা করে জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দিতে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসন এ সেবাটিকে অনলাইনে রূপান্তরের উদ্যোগ গ্রহণ করা

সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়েছে, বর্তমানে প্রচলিত পদ্ধতিতে একজন সেবা গ্রহীতাকে উত্তরাধিকার সনদ পেতে প্রায় ৬০ দিনের বেশি সময় অপেক্ষা করতে হয়। কিন্তু এখন সাধারণ নাগরিকগণ ঘরে বসে কিংবা নিকটবর্তী ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে গিয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনলাইনে আবেদনের মাধ্যমে ২০ দিনের মধ্যে এ সনদ পেতে পারে।

এ ফলে সেবা গ্রহীতার আবেদন খরচ,যাতায়াত ও সময় প্রায় অর্ধেক এ নেমে আসবে। রাঙ্গামাটি জেলার ওয়েব পোর্টালের আভ্যন্তরীন ই-সেবা কর্নারে স্থায়ী বাসিন্দা সনদ প্রদান,বিদেশী ভ্রমণকারীদের অনুমতি প্রদান সহ অনলাইনে উত্তরাধিকার সনদ প্রদান কার্যক্রমের লিংক সংযোজন করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে এসময় উপস্থিত ছিলেন, রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ মামুন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) এস এম ফেরদৌস ইসলাম এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদা বেগম প্রমুখ।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: