প্রচ্ছদ / বিনোদন / বিস্তারিত

আসিফের অন্যায় কোনোভাবেই আমার কাছে ক্ষমার যোগ্য নয়: ন্যান্সি

   
প্রকাশিত: ৮:০৮ অপরাহ্ণ, ৩ আগস্ট ২০২২

শেষ হয়েও হলো না শেষ! ঠিক এমনই যেনো বলা যায় জনপ্রিয় শিল্পী আসিফ আকবর ও নাজমুন মুনিরা ন্যানসির দ্বন্দ্বকে। গত কয়েকদিন আগেই সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে আসিফ আকবর ফেসবুক ন্যানসির সঙ্গে একটি ছবি পোস্ট করে লিখেন, ‘একটা ফোনের অপেক্ষায় ছিলাম চারটা বছর। অবশেষে এলো সেই কাঙ্খিত ফোন। হ্যালো বলতেই শুনলাম অনেক পছন্দের আদুরে কণ্ঠটি। ভাইয়া আমি ন্যানসি বলছি খুব ভালো লাগলো ওর ফোনটা পেয়ে। দুনিয়ার সমস্ত অভিযোগ অভিমান আমার বিরুদ্ধে, শুনে আরও ভালো লাগছিল। ন্যানসি তো আমার ছোট, আমি তো বড়, তাহলে আমার মিনিমাম ভুলের ম্যাক্সিমাম শাস্তি হওয়া উচিত।

আসিফ আরও লিখেন, ‘নাজমুন মুনিরা ন্যানসির কণ্ঠ আমাদের সম্পদ। আমাকে বলল, ভাইয়া আমি রাগ কমিয়ে ফেলেছি, আপনিও রাগ কমিয়ে ফেলেন। সঙ্গে সঙ্গেই রাজী হয়ে গেলাম। অনেকদিন পর স্নেহের ন্যানসির সঙ্গে গল্প-গানের আড্ডায় নিজেকে হালকা করে ফেলেছি। ভালো থাকো ন্যানসি, আনন্দে বাঁচো। গান গেয়ে যাও, তোমার কণ্ঠ এ দেশের মানুষের একটা আনন্দময় ভালো লাগা। আমিও সেই দলের বাইরে নই।’

আসিফের সেই স্ট্যাটাসের পরই ভক্তরা ধরে নেন তাদের মধ্যে থাকা দ্বন্দের অবসান ঘটেছে বুঝি। কিন্তু না, তেমনটি ঘটেনি! আসিফের স্ট্যাটাসের কয়েকদিন পর বুধবার (৩ আগস্ট) একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন ন্যান্সি নিজেও। যেখানে আবারও তাদের মধ্যে চলমান সম্পর্কের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ল।

আসিফের সঙ্গে কোনো গান বা আপোষ নয় বলে এই গায়িকা তার ফেসবুক পেইজে ৩ আগস্ট দীর্ঘ স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমার সর্বকনিষ্ঠ কন্যাকে দেখার উপলক্ষ্যে অনেক তারকাদের মত আমন্ত্রিত ছিলেন জনপ্রিয় গায়ক আসিফ আকবর। শিল্পী আসিফ আমাদের সবার প্রিয় কিন্তু উনার আমার সঙ্গে করা পূর্বের ধারাবাহিক মিথ্যে অসম্মানজনক অন্যায় কথা কোনোভাবেই আমার কাছে ক্ষমার যোগ্য নয়। নিরুপায় আমি আইনের দ্বারস্থ হবার পর বাকি বিষয় চলমান আদালতের বিচার প্রক্রিয়া যা সিদ্ধান্ত নেবেন তাই হবে। আসিফ আকবরের সঙ্গে কোনো ডুয়েট অ্যালবাম করার প্রস্তাব কোনো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে আসেনি, আসলেও করার প্রশ্নই আসে না । যথেষ্ট জল ঘোলা হয়েছে, আর নয়। আসিফ আকবরের আমার সঙ্গে গান প্রকাশের ইচ্ছে থাকলে সেটা একাস্তই তাঁর নিজস্ব ইচ্ছে, আমার নয়। আমি আমার পূর্বের অ্যালবাম এর প্রাপ্য সম্মানী ফেরত চাই, সস্তা পাবলিসিটি নয়!’

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: