প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

নিজ ঘরে যেতে পারতেন না বাক প্রতিবন্ধীর মা, প্রতিপক্ষের হামলা

   
প্রকাশিত: ১১:৩৪ অপরাহ্ণ, ৪ আগস্ট ২০২২

আরিফুর রহমান, মাদারীপুর থেকে: মাদারীপুরের পাঁচখোলা ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রামের জমিজমা নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বুধবার সকাল আনুমানিক সকাল ১০টার সময় মাকসুদা বেগম নিজ বাড়িতে গেলে প্রতিপক্ষ মাকসুদা ও তার বাক প্রতিবন্ধী ছেলে ইয়াসিনের উপরে হামলার ঘটনা ঘটে। হামলায় মাকসুদা বেগম ও বাকপ্রতিবন্ধী ছেলে ইয়াসিন আহত হয়।

এসময় মাকসুদা ও তার ছেলের ডাক চিৎকার করেন পরে মাকসুদা বেগম অজ্ঞান হয়ে রাস্তায় পড়ে থাকলে একজন মোটরসাইকেল চালক মাকসুদা কে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। এসময় সদর হসপিটালে গিয়ে মহিলা সার্জারি ওয়ার্ডে গুরুত্বর অবস্থায় চিকিৎসা নিতে দেখা যায় মা ও ছেলেকে।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, পাঁচখোলা ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রামের নেছার উদ্দিন তালুকদারের ছেলে নাসেত তালুকদার ও মাকসুদা বেগম এর সাথে দীর্ঘদিন যাবত জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে দ্বন্দ্ব আসছিল। তারেই জের ধরে বুধবার সকালে দশটার দিকে মাকসুদা বেগম তার নিজ বাড়িতে গেলে নাসেত তালুকদার ও তার দলবল মাকসুদাকে মারধর করে, এসময় প্রতিবন্ধী ছেলে ইয়াসিন মাকে মারতে দেখে হাউমাউ করে চিৎকার করতে থেকে। জানা যায় এর আগেও জমি জমা নিয়ে মাকসুদাকে মারধোর করার ঘটনা ঘটেছে। সেই সময় মাকসুদা বেগম মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা করলে সেই কাগজপত্র ঘর থেকে চুরি করে নিয়ে যায় নাসিত তালুকদার। তারপর থেকেই মাকসুদা বেগম যেতে পারছে না তার নিজ বাড়িতে।

ভুক্তভোগী মাকসুদা বেগম বলেন, আমার স্বামী নেই একটাই প্রতিবন্ধী ছেলে আমার সেই সুযোগ নিয়ে আমার সম্পত্তি আত্মসাৎ করার জন্য তিন মাস যাবত অত্যাচার করিতেছে মারধর করে আমাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে আমার জায়গা জমি দখল করার পায়তারা করিতেছে। আমার বাড়িতে আসলে লোকজন দিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দেয় আজকে আমাকে ও আমার বাক প্রতিবন্ধী ছেলেকে ওরা সবাই মিলে মারধর করেছে আমার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ও সাথে থাকা এক লক্ষ টাকা নিয়ে যায় নাসেত তালুকদার আমি এর বিচার চাই।

অভিযুক্ত নাসেত তালুকদার বলেন, আমার সাথে মাকসুদার সাথে কোন ঝামেলা হয় নাই আমি কিছু করি নাই। এক লাখ টাকাও স্বর্ণের চেন নেয়ার কথা একদম মিথ্যা কথা। মাদারীপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন।এ ঘটনার বিষয় আমার কাছে কেউ আসেনি যদি এসে অভিযোগ করে তবে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: