প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আবদুল কাদির

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

ময়মনসিংহ থেকে দুরপাল্লার বাস ৮০ শতাংশ বন্ধ, ভাড়াও দ্বিগুন

   
প্রকাশিত: ৬:১৬ অপরাহ্ণ, ৬ আগস্ট ২০২২

ছবি: প্রতিনিধি

হঠাৎ জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধির কারণে ময়মনসিংহ থেকে দুরপাল্লার বাস প্রায় ৮০ শতাংশ বন্ধ। এই সুযোগে দুরপাল্লার কিছু বাসে দ্বিগুন ভাড়া নেয়ার অভিযোগ করছেন যাত্রীরা। এই নিয়ে চালক, বাসসহকারীদের সাথে যাত্রীদের কথা কাটাকাটি এমনকি হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছে। তবে, ভাড়া বেশি নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করছেন বাস চালকরা।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) মধ্যরাত থেকে জ্বালানী তেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় সকাল থেকে ময়মনসিংহ থেকে দুরপাল্লার বাস ৮০ শতাংশ বন্ধ রয়েছে। অন্যান্য দিনের ন্যায় রাস্তায় নেই কোন যানজট। শনিবার (৬ আগস্ট) দুপুরে ময়মনসিংহ নগরীর পাটগুদাম ব্রীজ মোড়ে গিয়ে দেখা যায়, বাসস্টেন্ডে শত শত গাড়ি পার্কিং করে রাখা হয়েছে।

এদিকে, যাত্রীরা বাসস্টেন্ডে এসে গাড়ি না পেয়ে পড়েছেন বিপাকে। কেউ কেউ বাধ্য হয়ে দ্বিগুন ভাড়া দিয়ে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে গাড়িতে উঠেছেন। আবার কেউ কেউ ভাড়া দ্বিগুন হওয়ায় রাস্তার উপরেই দাড়িয়ে আছেন।
কথা হয় মাহবুব আলম নামে এক যাত্রীর সাথে তিনি বলেন, ময়মনসিংহ থেকে স্কয়ার মাস্টারবাড়ি ভাড়া ৬০ টাকা। কিন্তু সকালে এসে দেখি সেই ভাড়া ১৫০ টাকা হয়েছে। আমি সাধারণ গার্মেন্টস শ্রমিক। এভাবে খরচ বাড়লে সংসার চালানো অসম্ভব হয়ে পড়বে।

ঈশ্বরগঞ্জের সোহাগী থেকে আসা শামছু নাহার নামে গৃহকর্মী বলেন ময়মনসিংহ থেকে নয়নপুর ভাড়া ৬০ টাকা। কিন্তু এখন এসে দেখি সেই ভাড়া ১৫০ টাকা এভাবে ভাড়া বাড়লে আমরা কিভাবে যাতায়াত করবো।

ময়মনসিংহ থেকে গাজীপুরের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় যাবেন সুমন মিয়া। তিনি বলেন, হুটহাট করে জ্বালানীর দাম বাড়ানোতে রাস্তায় দুরপাল্লার বাস নেই বললেই চলে। তাই, চালক ৬০ টাকার ভাড়া ১৫০ টাকা করে রাখছে। হেটে তো আর যাওয়া যাবে না। বাধ্য হয়েই যাচ্ছি।

শফিকুল ইসলাম নামে এক নির্মাণ শ্রমিক বলেন, ৪ ঘন্টা যাবত বাসের জন্য দাড়িয়ে আছি গাজীপুর চৌরাস্তা যাওয়ার জন্য। কিন্তু বাস পাচ্ছি না। যাও পেয়েছি, ৮০ টাকার ভাড়া ১৮০ টাকা চায়। এখন বাড়িতে ফিরে যাব নাকি ভাবছি।

শেরপুর থেকে ঢাকাগামী রিফাত পরিবহনের চালক রিফাত আহমেদ বিডি২৪লাইভকে বলেন, আমরা যাত্রীদের কাছ থেকে টাকা নিয়েই আমরা চলি। তেলের দাম বাড়ছে, তাই ভাড়া কিছুটা বেশি নেয়া হচ্ছে। তবে, কাউকে জুলুম করা হচ্ছে না। যারা যাবে তাদের নিয়েই যাচ্ছি।

ময়মনসিংহ থেকে পাবনা নিউ সোলা পরিবহনের জহিরুল ইসলাম বিডি২৪লাইভকে বলেন, যাত্রীদের সাথে কথা কাটাকাটি ও মারামারি হওয়ার ভয়ে গাড়ি চালানো বন্ধ রাখতে বলছে। তবে, পেটের দায়ে গাড়ি নিয়ে বের হয়েছি।

পাটগুদাম বাসস্ট্যান্ড শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোখছেদুল শেখ বিডি২৪লাইভকে বলেন, সকাল থেকে প্রায় সব সড়কেই গাড়ি চলাচল বন্ধ। প্রায় ৯০ শতাংশ গাড়ি বন্ধ। নিয়মিত জারিয়া ধোবাউড়া ২৫ থেকে ৩০ বাস ছেড়ে যেত। কিন্তু, সকাল মাত্র চার বাস ছেড়ে গেছে।

এবিষয়ে পাটগুদাম বাসস্টেন্ড কর্মকর্তা মো.হেলাল বিডি২৪লাইভকে বলেন, সকাল থেকে প্রায় ৮০ শতাংশ বাস বন্ধ রয়েছে। তবে, কিছু বাস ছেড়ে গেলেও যাত্রী পাচ্ছে না।

ময়মনসিংহ জেলা মটর মালিক সমিতির মহাসচিব মো.মাহবুবুর রহমান বিডি২৪লাইভকে বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির খবর পেয়ে আমরা বসেছিলাম। তবে, আমরা কোন মালিককে বলব না গাড়ি চালাতে। তাদের মন চাইলে চালাবে কোন নিষেধ নাই। তবে, ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়টি আমার জানা নেই।

তুহিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: