প্রচ্ছদ / ক্যাম্পাস / বিস্তারিত

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘মিডিয়া এন্ড জার্নালিজম’ কর্মসূচি শুরু

   
প্রকাশিত: ২:৪২ অপরাহ্ণ, ৭ আগস্ট ২০২২

বাংলাদেশের গণমাধ্যমের প্রতি জনগণের আস্থা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত মিডিয়া গ্রাজুয়েট তৈরিতে দেশের গণমাধ্যম সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়-কেন্দ্রিক সাংবাদিকতা শিক্ষার প্রাতিষ্ঠানিক সহযোগিতা জোরদার আহবান জানিয়েছেন প্রথিতযশা গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ববৃন্দ।

শনিবার (৬ আগস্ট)এনএসইউ’র সিন্ডিকেট হলে আয়োজিত ‘কেমন মিডিয়া গ্র্যাজুয়েট চাই’ শীর্ষক এক গোলটেবিল আলোচনায় তারা এই আহবান জানান। গণসংযোগ ও সাংবাদিকতার জগতে দক্ষ কর্মশক্তি বৃদ্ধির উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে রাষ্ট্রবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞান বিভাগের আয়োজনে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় নতুন কর্মসূচি ‘মিডিয়া এন্ড জার্নালিজম’ আজ যাত্রা শুরু করেছে।

‘মিডিয়া এন্ড জার্নালিজম’ কর্মসূচির সহযোগী অধ্যাপক ড. রিজওয়ান-উল-আলমের সঞ্চালনায় উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন হাসিবুর রহমান, কার্যনির্বাহী পরিচালক, ম্যানেজমেন্ট এন্ড রিসোর্সেস ডেভলপমেন্ট ইনিসিয়েটিভ (এমএরডিআই), সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং প্রধান সম্পাদক, গ্লোবাল টেলিভিশন, আশরাফ কায়সার, সিইও,বেঞ্চমার্ক পিআর, আনিসুল হক, ডেপুটি সম্পাদ, দৈনিক প্রথম আলো, সৈয়দ গাইছুল আলম শাওন, ম্যানেজিং পার্টনার এন্ড কান্ট্রি হেড, গ্রে বাংলাদেশ, তুষার আবদুল্লাহ, সিইও, এখন টিভি; ড. গীতিয়ারা নাসরিন, প্রফেসর, গণসংযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়; আব্দুন নূর তুষার, সিইও, গতি মিডিয়া লিমিটেড, খাইরুল বাশার, হেড অব কমিউনিকেশান, গ্রামীনফোন, সৈয়দ আশফাকুল হক, নির্বাহী সম্পাদক, দ্যা ডেইলি স্টার সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ।

আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রফেসর গীতি আরা নাসরীন তার বক্তব্যে বলেন, শিক্ষার্থীদেরকে মিডিয়ার ভাষা বুঝতে হবে। পাশাপাশি গবেষণায় অংশ নিতে হবে। বর্তমানে বাংলাদেশে মিডিয়ার গবেষণা সেভাবে হচ্ছে না। গবেষণার জন্য প্রয়োজন বড় বাজেট। প্রথম আলোর সহযোগী সম্পাদক জনাব আনিসুল হক বলেন, মিডিয়ায় মত প্রকাশের স্বাধীনতার যথেষ্ঠ গুরুত্ব রয়েছে। কিন্তু পৃথিবীর অন্যান্য দেশের মতো আমাদেরও কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের দেশেও এই জায়গাটির অধিক উন্নয়ন দরকার।

আব্দুন নূর তুষার বলেন, জার্নালিজম এর শিক্ষার্থীদের বাংলা এবং ইংরেজি উভয় ভাষা এবং মিডিয়ার পরিবর্তনশীলতার সাথে খাপ খায়িয়ে চলার দক্ষতা থাকতে হবে। আমাদের বিশ্ববাজারের জন্য উপযুক্ত গ্রাজুয়েট তৈরি করতে হবে। গ্রামীনফোন এর হেড অব কমিউনিকেশান খাইরুল বাশার জার্নালিজম এর শিক্ষার্থীদের গতানুগতিক মিডিয়া এর পাশাপাশি পরিবর্তিত মিডিয়ার নতুন বিষয় সম্পর্কে দক্ষতা অর্জন এর উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা তার বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের ভাল বাংলা ও ইংরেজি ভাষা শিক্ষা এবং কম্পিউটার এর দক্ষতা অর্জনের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। সৈয়দ আশফাকুল হক তার বক্তব্যে বলেন, সাংবাদিক শুধু ক্লাস রুমে তৈরি হয় না, তত্ত্ব এবং তার বাস্তবিক প্রয়োগ এর মধ্যে একটা পার্থক্য রয়েছে। দক্ষ সাংবাদিক গড়ে তুলতে হলে তাদের বাস্তবিক জ্ঞান এবং প্রযুক্তির পরিবর্তনের সাথে খাপ খায়িয়ে চলতে পারে এমন ভাবে তৈরি করতে হবে। সৈয়দ গাইছুল আলম শাওন কঠোর ভর্তি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যাদের সাংবাদিকতা পড়ার দক্ষতা এবং আগ্রহ আছে শুধু তাদের ভর্তি করানোর পরামর্শ দেন। প্রায় সকল আলোচক গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের সাথে সাংবাদিকতা শিক্ষার প্রাতিষ্ঠানিক সহযোগিতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করেন। ছাড়াও অন্যান্য অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্যে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ধারাবাহিক সাফল্য এবং মিডিয়া এবং জার্নালিজম বিভাগের পথযাত্রায় সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর জনাব আতিকুল ইসলাম তার বক্তব্যে সাংবাদিকতাকে একটি দেশ বা রাষ্ট্রের দর্পণের সাথে তুলনা করে বলেন, সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীদেরকে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য সকল ধরনের সুযোগ সুবিধা সরবরাহ করা হবে। দক্ষ গণমাধ্যমকর্মী গড়ে তুলতে নর্থ সাউথ বদ্ধপরিকর।

আলোচনার শুরুতে এই কর্মসূচির প্রেক্ষাপট ও যৌক্তিকতা তুলে ধরে পিএসএস বিভাগের চেয়ারম্যান এসকে তৌফিকুল এম হক জানান, মাত্র ৩৫ জন শিক্ষার্থী এই নতুন কর্মসূচিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন। অনুষ্ঠানের কারিকুলাম সম্পর্কে বিস্তারিত উপস্থাপন করেন পিএসএস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. হারিসুর রহমান। ‘মিডিয়া এন্ড জার্নালিজম ’ কর্মসূচির শিক্ষক আসিফ বিন আলী পুরো অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

১৯৯২ সালে যাত্রা শুরু করা দেশের প্রথম প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যায় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি দেশের শিক্ষাজগতে নতুন পথের উন্মোচন করেছে । জাতীয় পর্যায়কে ছাপিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সমানভাবে দক্ষতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক মানের বিশ্বিবিদ্যালয় হিসেবে খ্যাতি ধরে রাখতে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় বদ্ধপরিকর । এরই ধারাবাহিকতায় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান “কিউএস এশিয়া ইউনিভার্সিটি র‍্যাংকিং – ২০২২” এ বিশ্বসেরা ৫০০ বিশ্বিবিদ্যালয়ের মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে ।

নতুন যাত্রা করা মিডিয়া এন্ড জার্নালিজম কর্মসূচির অন্যতম উদ্দ্যেশ্য হলো, আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদেরকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলা । উক্ত বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে অত্যন্ত আধুনিক ল্যাব থেকে শুরু করে এনএসইউ টিভি রেডিওর মতো বড় ধরনের ব্যবস্থাপনা।

না.হাসান/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: