প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সাহিদুজ্জামান সাহিদ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

স্কুলছাত্রকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে জখম

   
প্রকাশিত: ৭:০০ অপরাহ্ণ, ৭ আগস্ট ২০২২

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়ায় ১০ম শ্রেণির এক ছাত্রকে (১৬) ডেকে নিয়ে সবজি ক্ষেতে ফেলে মারধর ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়েছে স্থানীয় বখাটেরা। এ ঘটনায় জড়িত আটজনের নাম উল্লেখ করে আজ রবিবার (৭ আগস্ট) দুপুরে সাটুরিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই ছাত্রের বাবা মজিবর রহমান।

এর আগে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে সাটুরিয়া উপজেলার ধানকোড়া ইউনিয়নের মহিষালোহা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্তরা হলেন, উপজেলার ধানকোড়া ইউনিয়নের মহিষালোহা গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে লিটন হোসেন (২০), কাজু মিয়া ছেলে ইমরান হোসেন (২১), খোরশেদ আলমের ছেলে খবু মিয়া (২২), চিনু মিয়ার ছেলে আমিনুর রহমান (২২), মৃত. হাফিস উদ্দিনের ছেলে আ: আজিজ (৫০), গজন মিয়া ছেলে মো: শাহা (৪৫), কাশিম আলী (২২), চানমিয়ার ছেলে সেলিম মিয়া (২০)।

ভুক্তভোগী সিয়াম হোসেন ঢাকার ধামরাই উপজেলার গাংগুটিয়া ইউনিয়নের কাওয়াখোলা গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে। সে সাটুরিয়ার ধানকোড়া ইউনিয়নের মহিষালোহা জব্বারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্র।

অভিযোগসূত্রে জানা যায়, স্কুলের বন্ধুদের আমন্ত্রণে সেদিন রাতে গান শুনতে ওই এলাকায় যায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী। এ সময় তুচ্ছ ঘটনায় পূর্ব বিরোধের জেরে তাকে আড়ালে ডেকে নেয় অভিযুক্তরা। পরে তাকে কথায় কথায় একটি সবজি ক্ষেতের কাছে নিয়ে অতর্কিতভাবে কিল-ঘুষি, লাথি মারতে মারতে মারধর শুরু করে।

এক পর্যায়ে ২-৮ নং অভিযুক্ত লোহার রড, কাঠের বাটাম দিয়ে তার ওপর এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকলে ভুক্তভোগি রক্তাক্ত জখম হয়। এছাড়া ১নং অভিযুক্ত চাপাতি দিয়ে তার মাথা, কপালো পিঠ ও দুই হাতে কোপায়। এ সময় ভুক্তভোগীর ডাক চিৎকারে অন্যরা এসে তাকে উদ্ধার করলে অভিযুক্তরা তাকে ফেলে পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে সাটুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আশরাফুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করে মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর বাবা লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: