আরিফ জাওয়াদ

ঢাবি প্রতিনিধি

শাহবাগে তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভে পুলিশের লাঠিপেটা

   
প্রকাশিত: ৯:৩৬ অপরাহ্ণ, ৭ আগস্ট ২০২২

ছবি: প্রতিনিধি

দেশে জ্বালানি তেলের (ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন, পেট্রোল) দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বামপন্থি ছাত্রসংগঠনগুলোর ডাকা বিক্ষোভ সমাবেশে লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। বামপন্থি ছাত্রসংগঠনগুলোর অভিযোগ পুলিশের লাঠি চার্জে অন্তত ১৩ জন আহত হয়েছে। আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। রবিবার (৭ আগস্ট) সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহবাগ মোড়ে এই ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- সানি আব্দুল্লাহ (২৩), বাঁধন (২৩), শান্তা (১৮), জাওয়াদ আহমেদ (২৫), দাবির আহমেদ জুবেন (২৩), দীপা মনি (২২), আদনান (২৪), শাহাদাত (২০), ইভান (২১), অনিক (২০), দিয়া মল্লিক (২৭), তানজিল (২২) ও তামজিদ (২৪)।

সমাবেশে অংশ নেওয়া ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি অনিক রায় বলেন, শাহবাগে ‘প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠন’গুলোর ব্যানারে পৌঁছালে, পুলিশের পক্ষ থেকে তাড়াতাড়ি সমাবেশ শেষ করতে বলা হয়। আমরা তাদের বলি, আমাদের সভাপতির বক্তব্য বাকি। তার বক্তব্যের পর আমরা চলে যাব। ঠিক সে সময় একজন পুলিশ আমাদের এক কর্মীকে আক্রমণ করে বসে। এরপর সঙ্গে সঙ্গে চতুর্দিকে থাকা পুলিশ আমাদের ওপর অতর্কিত লাঠিপেটাসহ হামলা করে। বিনা উসকানিতেই তারা আমাদের ওপর আক্রমণ করেছে।

তিনি আরো বলেন, পুলিশের লাঠিপেটায় তাদের আহত ১৩ নেতাকর্মী এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। হামলা করে আমাদের আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না।

এই হামলার প্রতিবাদে সোমবার (৮ আগস্ট) বেলা ১২টায় মধুর ক্যান্টিন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হবে। মিছিল-পরবর্তী সমাবেশ থেকে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান তিনি। পুলিশের হামলার পর শাহবাগ থেকে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে সংগঠনসমূহের নেতাকর্মীরা সমাবেশ করেন।

এর আগে বামপন্থি ছাত্রসংগঠনগুলোর পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিকেল পৌনে ৬টার দিকে ‘প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠন’গুলোর ব্যানারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকা থেকে বাম সংগঠনগুলোর বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি শাহবাগ ও কাঁটাবন মোড় ঘুরে ফের শাহবাগ মোড়ে ফিরে এসে মোড়ের মূল সড়ক সংলগ্ন ফুটপাতে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশের শেষ পর্যায়ে সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে পুলিশ বাম সংগঠনের নেতাকর্মীদের ওপর হঠাৎ লাঠিচার্জ শুরু করে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে শাহবাগ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মওদূত হাওলাদারকে ফোন দিলেও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার রাতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দেয় সরকার। রাত ১২টার পর থেকেই নতুন এই দাম কার্যকর করা হয়েছে।ডিজেল ও কেরোসিন লিটারে ৩৪ টাকা বাড়িয়ে ১১৪ টাকা, পেট্রোলের দাম ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা করে বিক্রি করা হচ্ছে। অকটেন বিক্রি করা হচ্ছে ১৩৫ টাকা করে যা আগের তুলনায় ৪৬ টাকা বেশি।

তুহিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: