প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

চোরাই পন্য সহ সাবেক ইউপি সদস্য আটক

   
প্রকাশিত: ৯:১৩ পূর্বাহ্ণ, ৮ আগস্ট ২০২২

কামরুল হাসান নিরব, ফেনী থেকে: ফেনী জেলা গোয়েন্দা শাখার বিশেষ অভিযানে ফেনীর পলিটেকনিক’র সামনে হতে একটি সাদা রংয়ের কাভার্ডভ্যান ও বিভিন্ন ব্রান্ডের এবং কালারের ভারতীয় শাড়ী ৫১৫ (পাঁচশত পনের) পিস এবং বিভিন্ন ব্রান্ডের ভারতীয় লেহেঙ্গা ২৭০ (দুইশত সত্তর) পিস উদ্ধারসহ ০৪ জন আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে সাবেক ইউপি সদস্য অভির নেতৃত্বে এ পাচার কাজ হয় বলে আসামীরা পুলিশ মাধ্যমে জানান।

আটককৃত আসামীরা হল মোঃ নুরুল আলম তুষার চৌধুরী (২৮), পিতা-অজিউল হক চৌধুরী, মোঃ আনোয়ার হোসেন অভি (৩৫), পিতা-মৃত শরিয়ত উল্ল্যাহ ০৩। শাহাদাৎ হোসেন (১৮), পিতা-আবুল বশর (২৮)। আটককৃতদের বাড়ী ছাগলনাইয়া রাধানগর ইউপির বলে জানা গেছে।

পুলিশের সূত্রে এবং সংশ্লিষ্ট আলাপনে জানা যায়, আসামীদের’কে জিজ্ঞাসাবাদে তারা উপরোক্ত নাম-ঠিকানা প্রকাশ করে এবং জব্দকৃত অবৈধ ভারতীয় শাড়ী ও লেহেঙ্গা ফেনী সীমান্তবর্তী এলাকার এই মামলার পলাতক আসামী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম (৪০) এবং মুন্না গং হতে চট্টগ্রাম সাতকানিয়া থেকে আসছে বলে জানান। জাহাঙ্গীর রাধানগর ইউপির মোকানিয়া গ্রামের নুরে আলমের সন্তান। অপরদিকে মুন্নার বাড়ি চট্টগ্রাম’র সাতকানিয়ায়।

এই বিষয়ে মামলা প্রধান এসআই ফয়সাল আহমেদ বিডি২৪লাইভকে মুঠোফোনে জানান’ উদ্ধারকৃত অবৈধ ভারতীয় শাড়ী ও লেহেঙ্গা আসামীগণ ও পলাতক আসামী পরস্পর যোগসাজশে সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে শুল্ক কর ফাঁকি দিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে আনয়ন করত এবং ফেনী শহর ও চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন স্থানে অজ্ঞাতনামা বিভিন্ন জনের নিকট বিক্রয় করিয়া আসিতেছে।

পলাতক আসামী এবং চট্টগ্রাম হতে রপ্তানিকৃত প্রধান সাপ্লায়ার মুন্নাকে গ্রেফতার প্রসঙ্গে ফেনী পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, পলাতক আসামীকে গ্রেফতারের কার্যক্রম অব্যাহত আছে। এই বিষয়ে ফেনী মডেল থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: