প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

ধর্ষণ ও ভ্রুণ হত্যায় মামলা জাকের পার্টির নেতা কারাগারে

   
প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, ৮ আগস্ট ২০২২

আসাদ গাজী, শরীয়তপুর থেকে: শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে জাকের পার্টির এক নেতার ধর্ষণে গৃহকর্মীর সন্তান প্রসবের ঘটনা ঘটছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত জাকের পাটির হারুন বেপারিকে (৫০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। গ্রেফতারকৃত হারুন বেপারি উপজেলার পৌরসভা গৈড্যা ৮নং ওয়ার্ডের আহাদ বক্স বেপারির ছেলে। এবং উপজেলা জাকের পাটির সভাপতি।

ধর্ষণের শিকার ওই গৃহকর্মী ও স্থানীয়রা জানান, ভুক্তভোগী বিধবা গৃহকর্মী এক সন্তান নিয়ে অভাব অনটনের কারণে এক বছর আগে জাকের পাটির নেতা হারুনের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ নেন তিনি। হারুন বেপারির স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ১০৭ নং পূর্ব মহিষার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। তাদের বাসায় কিছুদিন কাজ করার পর থেকে গৃহকর্তা হারুন স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে প্রতি শনিবার তাকে নানাভাবে যৌন হয়রানি করতেন।

পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গৃহকর্মীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন। এ ঘটনা ফাঁস না করার জন্য তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেন হারুন। এরপর থেকে প্রতি শনিবার স্ত্রী স্কুলে চলে যাওয়ার পর নিয়মিত তাকে ধর্ষণ করে আসছিলেন তিনি। একপর্যায়ে গৃহকর্মী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এরপর বাচ্চাটি নষ্ট করার জন্য গৃহকর্মীকে প্রতিনিয়ত চাপ প্রয়োগ করতে থাকেন তিনি। বাচ্চাটি নষ্ট করতে কয়েক দফা হাসপাতালেও নিয়ে যাওয় হয় এবং জোর করে ফ্যার্মেসি থেকে বাচ্ছা নষ্ঠ করার ঔষুধ এনে খাওয়ানো হলে রাতে ব্লাডিং শুরু হয়।

পরে গৃহকর্মীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে গতকাল রাত দশটার দিকে ওই গৃহকর্মী ভেদরগঞ্জ উপজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরি ওয়ান-স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) শাখায় ভর্তি করা হয়। সেখানে ওই গৃহকর্মী ২৮ সপ্তাহ বয়সের একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম দেয়ার দুই ঘন্টা পরে নবজাতকের মৃত্যু হলে বিষয়টি মুহূর্তেই চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে এবং এলাকায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়।

এ ব্যাপারে জেলা জাকের পাটির সভাপতি কাজী বাদল বলেন, আমি ঘটনাটি গতরাত ১১টায় শুনতে পাই। বিষয়টি সাধারণ সম্পাদককে জানিয়েছি। আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি। ঘটনা সত্যি হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবো।

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাহালুল খান বাহার বলেন, ওই ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। আসামি হারুনকে গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। ভিকটিম অসুস্থ, দু-একদিন পর সে আদালতে গিয়ে জবানবন্দি দেবে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: