প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মোঃ হাবিবুর রহমান

নড়াইল প্রতিনিধি

প্রতিবন্ধী কিশোরকে হাতুড়ি পেটা, চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু!

   
প্রকাশিত: ১১:০৯ অপরাহ্ণ, ১৩ আগস্ট ২০২২

নড়াইলে শারীরিক প্রতিবন্ধী কিশোরকে হাতুড়িপেটায় গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিহত হয়েছে। শনিবার (১৩ আগস্ট) সন্ধ্যায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এর আগে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ওই কিশোরকে হাতুড়ি পেটা করে প্রতিপক্ষের লোকজন। নিহতের নাম জুয়েল ভূঁইয়া (১৮) সে সদর উপজেলার বাঁশগ্রাম ইউনিয়নের কর্মচন্দ্রপুর গ্রামের পান্নু ভূঁইয়ার পূত্র।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কর্মচন্দ্রপুর গ্রামে সিকদার ও ভূঁইয়া বংশের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবত আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিলো। জুয়েল বাড়ির পার্শ্ববর্তী মাদ্রাসা বাজারে একটি দোকানে কর্মচারি হিসেবে কাজ করেন। প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে বাড়ি থেকে ভ্যানযোগে দোকানে আসছিলেন।

পথিমধ্যে বেদভিটা নামক স্থানে পৌছালে কর্মচন্দ্রপুর গ্রামের ইয়াসিন, ফিরোজ, হাফজসহ ৬ জন নিরীহ জুয়েলের পথ গতিরোধ করে হাতুড়ি দিয়ে মাথায়, বুকেসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় গুরুতর যখম করে। পরে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সন্ধ্যায় মৃত্যু বরণ করেন জুয়েল। অভিযুক্তদের সাথে যোগাযোগ এর চেষ্টা করা হলেও পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনায় জুয়েলের চাচা মান্নান ভূঁইয়া বাদি হয়ে ঘটনার রাতেই সদর থানায় মামলা করেন। নড়াইল সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (চলতি দায়িত্বে) মাহমুদুর রহমান নিহতরে বিষয়টি নিশ্চিত করে বিডি২৪লাইভ কে বলেন, আমিসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছি। আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে।

তিনি আরও বলেন, এ মামলার প্রধান আসামি কর্মচন্দ্রপুর গ্রামের ওসমান সিকদারের পূত্র আতিয়ার সিকদারকে ওই সময় গ্রেপ্তার করা হয়েছিলো।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: