আরিফ জাওয়াদ

ঢাবি প্রতিনিধি

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে আনার দাবিতে ঢাবিতে মানববন্ধন

   
প্রকাশিত: ৪:২৭ অপরাহ্ণ, ১৪ আগস্ট ২০২২

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে আনার দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সন্ত্রাস রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশ ও পার্শ্ববর্তী সড়কে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। রোববার (১৪ আগস্ট) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনের সঞ্চলনায় ও ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যায় খুনিদের দায় মুক্তির করার জন্য ইনডেমনিটি এ্যাক্ট জারি করা হয়েছিল। পৃথিবীতে এমন কোন দেশ পাওয়া যাবে না যেখানে খুনিদের এভাবে দায় মুক্তি দেয়া হয়। ১৯৯৬ সালে এসে বঙ্গবন্ধুর তনয়া শেখ হাসিনা সেই এ্যাক্ট বাতিলে করে খুনিদের বিচারের রুদ্ধ পথ উন্মুক্ত করেন।

যেসব দেশে বঙ্গবন্ধুর খুনিরা পলাতক রয়েছে অনতিবিলম্বে সেসব দেশকে অনতিবিলম্বে দেশে ফিরয়ে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারের রায় কার্যকর করার সহযোগিতা কামনা করেন। এছাড়াও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে শুরু করে দেশে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত, এম্বাসেডরদের সহযোগিতা কামনা করেন ছাত্রলীগের এ নেতা।

সভাপতির বক্তব্যে ছাত্রলীগের ঢাবি শাখা সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে যেখানে মা, শিশু সহ নিরিহ মানুষকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে সেখানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় নিশ্চুপ থাকে আর বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচারের সময় এই আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় জেগে ওঠে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা মেনে নিতে পারে নি কখনোও এ সম্প্রদায়। বিশ্বের তথাকথিত মোড়ল দেশগুলোর প্রতি আহ্বান থাকবে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরে দিয়ে এ দেশের মানুষকে কলঙ্ক মুক্ত করতল সহয়তা করুন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, বঙ্গবন্ধুকে খুনের মধ্য দিয়ে দেশকে উল্টো পথে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। এছাড়া বঙ্গবন্ধুকে যারা খুন করেছিল, খুনি জিয়া তাঁদেরকে বিভিন্ন ভাবে পুরষ্কৃত করেছিল। বাংলাদেশের মানুষ মন থেকে কখনোই ভাল থাকবে না, যদি না বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনিদের বিচার না হয়। এজন্যও পলাতক খুনিদের বিচারের অওতায় এনে তা কার্যকরের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহযোগিতা কামনা করেন এ ছাত্রনেতা।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: