প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

পাইকগাছায় বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত

   
প্রকাশিত: ৮:৩৬ অপরাহ্ণ, ১৪ আগস্ট ২০২২

তৃপ্তি রঞ্জন সেন, পাইকগাছা (খুলনা): পাইকগাছায় ওয়াপদার বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে ও জোয়ারের পানি উপচে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ভেসে গেছে শত শত বিঘা চিংড়ি ঘেরের মৎস্য ও আমন ফসলের বীজতলা। ভাঙ্গন এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করছেন স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও পানি উন্নয়ন বোর্ড।

ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি)’র উপজেলা টিম লিডার ও ইউপি সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, বৈরী আবহাওয়ার প্রভাবে এলাকার নদ-নদীতে অস্বাভাবিক পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে প্রবল জোয়ারের স্রোতে পানি উন্নয়ন বোর্ডে ২৩নং পোল্ডারের উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ভাঙ্গাহাড়ি পাঁচ মুখ কারিতাস গেট সংলগ্ন স্থানে দফায় দফায় ভেঙ্গে যায়। প্রথমে শনিবার বিকাল ৪টার জোয়ারে ছোট আকারে ভেঙ্গে গেলে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান গাজীর নেতৃত্বে স্থানীয়ভাবে আমরা রাত ১০টা পর্যন্ত মেরামত করি। ভোর রাতের জোয়ারে আবারো বাঁধটি ভেঙ্গে যায়। সকালে পুনরায় মেরামতকাজ শুরু করা হয় এবং মেরামতকাজ চলমান থাকা অবস্থায় রবিবার দুপুরের জোয়ারে কারিতাস গেট সংলগ্ন ২৫-৩০ ফুট এলাকা জুড়ে ওয়াপদার বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে পোল্ডার অভ্যান্তরে পানি প্রবেশ করে।

মুহূর্তের মধ্যে ইউনিয়নের মাস্টার পাড়া, পার বয়ারঝাপা, নায়েবখালী, টেংরামারী ও সোলাদানার আংশিক সহ ৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়। তলিয়ে যায় শত শত বিঘা চিংড়ি ঘের ও আমন ফসলের বীজতলা। চিংড়ি ঘেরের মৎস্য ভেসে গিয়ে এবং বীজতলা তলিয়ে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান গাজী জানান।

অপরদিকে জোয়ারের উপচে পড়া পানিতে হরিঢালী ইউনিয়নের মাহমুদকাটী জেলেপল্লী ও গদাইপুর ইউনিয়নের বাইশারাবাদ সহ বেশ কয়েকটি এলাকা তলিয়ে গেছে বলে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী জানান। পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাজু হাওলাদার জানান, ভাঙ্গন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। বাঁধ মেরামতের জন্য বাঁশ, বস্তাসহ বিভিন্ন উপকরণ প্রস্তুত করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম জানান, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করা হচ্ছে। ভাঙ্গন সহ সার্বিক পরিস্থিতি জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসন থেকে সহায়তা হিসেবে চাল ও নগদ অর্থ বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছে। বাঁধ মেরামতের জন্য সব ধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সোমবার সকাল থেকে স্থানীয় এলাকাবাসীর সহযোগিতায় বাঁধ মেরামত করা হবে বলে উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী এ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: