প্রচ্ছদ / সারাবিশ্ব / বিস্তারিত

মুকেশ আম্বানিকে সপরিবারে হত্যার হুমকি

   
প্রকাশিত: ১১:৫৪ অপরাহ্ণ, ১৫ আগস্ট ২০২২

ভারতের শীর্ষ ধনীদের একজন মুকেশ আম্বানী। আট বারা ফোন দিয়ে মুকেশ আম্বানীর পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তদন্তে নেমে আফজল নামে এক যুবককে আটক করেছে মুম্বাই পুলিশ। সম্প্রতি  ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি  এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে জানা যায়, মুম্বইয়ে অবস্থিত রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালে আট বার হুমকি ফোন আসে। অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি আম্বানি পরিবারের উদ্দেশে বলে যে তিন ঘণ্টার মধ্যে বড় কিছু ঘটতে চলেছে। এরপরই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ পুলিশকে খবর দেয়। মুম্বাই  পুলিশের এক শীর্ষ কর্তা ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা অভিযোগ পেয়েছি। পুরো বিষয়টি বখতিয়ে দেখা হচ্ছে। হাসপাতালের নম্বরে ফোন করা হয়েছিল। সেই ভিত্তিতে তদন্ত চলছে।’ এদিকে ঘটনা প্রসঙ্গে রিলায়েন্স হাসপাতালের সিইও চিকিৎসক তারাং গিয়ানচান্দানি বলেন, ‘এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি আট বার ফোন করে মুকেশ আম্বানিকে খুনে হুমকি দেয়। মুম্বাই পুলিশের কাছে এরপর আমরা অভিযোগ দায়ের করি।’

তবে  অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কাজ শুরু করে দেয় পুলিশ। বর্তমানে হাসপাতালে গিয়ে অনেকের জবানবন্দি রেকর্ড করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও, কে ফোন করেছে, তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে। সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, হাসপাতালের নিরাপত্তাও বাড়ানো হতে পারে। এর আগে মনসুখ হরিণের ঘটনার পর থেকে মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে শিল্পপতির পরিবারকে কড়া নিরাপত্তা দেওয়া হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত বছর ফেব্রুয়ারিতে মুম্বাইয়ে আম্বানির বাড়ি ‘অ্যান্টিলা’র সামনে গাড়িতে বিস্ফোরক উদ্ধারের ঘটনা নিয়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। সে সময় পুলিশ সূত্র নিশ্চিত করে যে, গাড়ির ভেতর থেকে ২০টি বিস্ফোরক পদার্থ ‘জিলেটিন’ পাওয়া গেছে। সম্প্রতি রিলায়েন্স জিও থেকে চেয়ারম্যানের পদ ছেড়েছেন মুকেশ আম্বানি। ওই পদে বসেছেন তার ছেলে আকাশ আম্বানি। অপরদিকে রিলায়েন্স রিটেলের চেয়ারম্যান করা হতে পারে মুকেশ কন্যা ইশা আম্বানিকে। রিলায়েন্স গ্রুপের ভবিষৎ পরবর্তী প্রজন্মের হাতে তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছেন ভারতের অন্যতম ধনী এই শিল্পপতি।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: