কামরুল হাসান অভি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

পরিক্ষার আট মাসেও ফল পায়নি রাবির আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা

   
প্রকাশিত: ৬:১৫ অপরাহ্ণ, ১৭ আগস্ট ২০২২

ছবি - সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থীদের ২য় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা শেষ হয়েছে গত ডিসেম্বরে। কিন্তু পরীক্ষা শেষের আট মাস পেরিয়ে গেলেও ফল প্রকাশিত হয়নি। এতে সেশনেজটের দুশ্চিন্তায় পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের অভিযোগ পরীক্ষা কমিটির সভাপতির উদাসীনতার কারণে ফল প্রকাশে বিলম্ব হচ্ছে। যদিও বিষয়টি অস্বীকার করেছে কমিটির সভাপতি।

বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২১ অক্টোবর ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়। লিখিত পরীক্ষা শেষ হয় ওই বছরের ১৮ই নভেম্বর। সর্বশেষ ভাইভা সম্পন্ন হয় পহেলা ডিসেম্বর। দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষা কমিটির সভাপতি ছিলেন অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান। তিনি আইন বিভাগেরও সভাপতি। পরীক্ষা শেষ হওয়ার আট মাস কেটে গেলেও এখনো ওই বর্ষের ফলাফল প্রকাশিত হয়নি।

বিভাগের শিক্ষার্থীরা বলছেন, ভাইভা শেষ হওয়ার কয়েক মাস পর তারা ফল প্রকাশের বিষয়ে অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধানের সঙ্গে যোগাযোগ করে ছিলেন। ওই সময় বিভাগের সভাপতি শিক্ষার্থীদের রোজার ঈদের পর ফল প্রকাশ করার আশ্বাস দেন। কিন্তু ঈদের পর যোগাযোগ করলে বিভাগের সভাপতি জানান, বিভিন্ন কোর্সের শিক্ষকরা খাতা জমা না দেওয়ায় ফল প্রকাশে বিলম্ব হচ্ছে। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে ফল প্রকাশের ফের আশ্বাস দেন।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা বিভাগের সভাপতির কাছে এ বিষয়ে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন বিভিন্ন কোর্সের শিক্ষকরা এখনও খাতা জামা দেয়নি। কোর্স টিচারদের বললে তারা বলে, খাতা জমা দেওয়া হয়েছে। তখন সভাপতি বলে, রোজার ঈদের পরে রেজাল্ট দেওয়া হবে। রোজার ঈদের পরে জিজ্ঞাসা করলে বলে, কোরবানীর ঈদের পরে দেবেন। এভাবেই শুধু ঘুরাচ্ছেন তিনি। অথচ আমাদের সিনিয়রদের পরীক্ষার এক মাসের মধ্যে রেজাল্ট দিয়ে দিয়েছে।

একই বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমাদের সেশনে অন্য বিভাগের বন্ধুরা তৃতীয় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষা দিবে কয়েক দিনের মধ্যে অথচ আমাদের ফলাফলই প্রকাশিত হয়নি। যদি তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষার আগ মুহূর্তে ফলপ্রকাশিত হয় সেক্ষেত্রে আমাদের অনেকের জন্য বিড়ম্বনা তৈরি হবে। কারণ অনেকের ইমপ্রুভমেন্ট আসতে পারে। সেক্ষেত্রে আমরা তৃতীয় বর্ষের কোর্সগুলো পড়বো নাকি দ্বিতীয় বর্ষের ওই কোর্সের ইমপ্রুভের জন্য পড়াশোন করবো? আমরা অন্যান্য শিক্ষকদের কাছে শুনেছি তারা রেজাল্ট (খাতা) জমা দিয়ে দিয়েছেন। অর্থাৎ বিভাগের সভাপতি কোনো কারণে রেজাল্ট দিচ্ছেন না। শুধু কথার প্যাঁচে ঘোরাচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আব্দুল হান্নান বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাদেশ অনুসারে পরীক্ষা শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করতে হবে।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে আইন বিভাগের সভাপতি ও পরীক্ষা কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, এ বর্ষের শিক্ষার্থীদের খাতা দেখার দায়িত্বে থাকা বেশ কয়েকজন শিক্ষক অসুস্থ থাকায় নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। আমরা ইতোমধ্যে সকল খাতা হাতে পেয়েছি। এক সপ্তাহের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: