প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

আখাউড়ায় টাস্কফোর্সের অভিযান আটক ৫, নয় লক্ষ টাকার ইয়াবা উদ্ধার

   
প্রকাশিত: ১০:৩৯ অপরাহ্ণ, ১৮ আগস্ট ২০২২

মোহাম্মদ আবির, আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকে: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় মাদক বিরোধী টাস্কফোর্সের অভিযানে আলোচিত মাদক সম্রাট সোহাগ মোল্লাসহ পাঁচ জন আটক হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় আখাউড়া পৌরশহরের দেবগ্রামের সোহাগ মোল্লার সহযোগি শাওন মিয়ার বাড়ি থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো পৌরশহরের ৮নং ওযার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল কাদির মোল্লার ছেলে সোহাগ মোল্লা (৩৫), মোঃ শাওন (২৮), তানিয়া আক্তার (২০), ফাতেমা আক্তার (২২), জান্নাত আক্তার (১৯)। এসময় তাদের দেহ তল্লাশী করে ১ হাজার ৮০০ পিস ইয়াবা জব্ধ করা হয়। জব্দকৃত ইয়াবার মূল্য প্রায় ৯ লক্ষ টাকা।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার বিকালে জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, থানা পুলিশ ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের সমন্বয়ে গঠিত টাস্কফোর্স পৌরশহরের দেবগ্রাম এলাকায় সোহাগ মোল্লার বাড়ির পাশের শাওন মিয়ার বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় আটককৃতরা মাদক পাচারের উদ্দেশ্য পরামর্শ করছিল। পরে তাদের দেহ তল্লাশী করে ১৮শ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। যার আনুমানিক মূল্য প্রায় ৯ লক্ষ টাকা।

অভিযান পরিচালনাকালে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অংগ্যজাই মারমা, জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান, আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আসাদুল ইসলাম। থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সাল থেকে এ পর্যন্ত সোহাগ মোল্লার বিরুদ্ধে ১৩টি বিভিন্ন মামলা হয়েছে। সে মাদক এবং ডাকাতির প্রস্তুতির ৪টি মামলার ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী।

এর আগে, গত ২১ মে মাদক বিরোধী টাস্কফোর্স সোহাগ মোল্লার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তার বাবা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল কাদির মোল্লাকে আটক করে। তাদের ঘর থেকে ২ হাজার ২৩৫ পিস ইয়াবা জব্ধ এবং মাদক সেবনের সরঞ্জামন উদ্ধার করা হয়।

এ ব্যপারে জেলা মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান বলেন, আটক সোহাগ মোল্লা একজন কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। সে অপরাধ জগতের ডন। আটকৃতদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ অনুযায়ী নিয়মিত মামলা রুজু করা হবে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: