আরিফ জাওয়াদ

ঢাবি প্রতিনিধি

যৌন হয়রানির অভিযোগে ঢাবি শিক্ষককে শিক্ষা কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি

   
প্রকাশিত: ৬:৩৯ অপরাহ্ণ, ২০ আগস্ট ২০২২

ছবি - প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সংগীত বিভাগের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে এনে এক বছরের জন্য শিক্ষা কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দিয়েছে বিভাগের একাডেমিক কমিটি। অব্যাহতি পাওয়া ওই শিক্ষক মো. এনামুল হক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সংগীত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। গণমাধ্যমল তাঁকে অব্যাহতির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংগীত বিভাগের চেয়ারম্যান দেবপ্রসাদ দাঁ।

তিনি বলেন, বিভাগের অধিকাংশ শিক্ষকের মতামতের ভিত্তিতে এনামুলকে সব ধরনের শিক্ষা কার্যক্রম থেকে এক বছরের জন্য অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ চূড়ান্ত করা হয়েছে৷ এটি শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হবে৷ তবে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে বিধি মোতাবেক পরবর্তী চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। আপাতত ক্লাস, পরীক্ষা থেকে শুরু করে সব ধরনের অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম থেকে তাকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে। এদিকে শিক্ষার্থীদের দাবি ওই শিক্ষকের স্থায়ী অব্যাহতি৷ এ দাবির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আগামীকাল রোববার (২১ আগস্ট) বিভাগের একাডেমিক কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবার কথা রয়েছে।

জানা যায়, সাম্প্রতিক রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টে বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীকে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দেন ওই শিক্ষক। এসময় ভুক্তভোগী ছাত্রী এনামুল হকের কথোপকথন রেকর্ড করেন। পরে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এনে বিভাগীয় চেয়ারপারসন বরাবর একটি অভিযোগ দাখিল করেন। ১৪ আগস্ট সংগীত বিভাগের এক ছাত্রী বিভাগের চেয়ারম্যান দেবপ্রসাদ দাঁর কাছে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন৷ পাওয়ার পর তদন্তের জন্য ১৬ আগস্ট কমিটি করে সংগীত বিভাগ৷

অভিযোগের ভিত্তিতে গঠিত তদন্ত কমিটি ঘটনার সত্যতা পায়। অ্যাকাডেমিক কমিটির সভায় এনামুল হক তার অপরাধের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন বলেও জানা যায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১৭ আগস্ট এনামুলকে শিক্ষা কার্যক্রম থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: