প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

সাড়ে ৮ ঘণ্টা পর রাজশাহীতে ফের ট্রেন চলাচল শুরু

   
প্রকাশিত: ৯:৪৪ পূর্বাহ্ণ, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফাইল ছবি

রাজশাহীর চারঘাট উপজেলায় সরদেহ স্টেশনে পঞ্চগড়গামী বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস ট্রেনের একটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। সাড়ে ৮ ঘণ্টা পর বগিটি উদ্ধার হলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। আজ মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার।

তিনি বলেন, রাজশাহী থেকে রাতে পঞ্চগড়ের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সরদহ রেলস্টেশনের কাছে লাইনচ্যুতির ঘটনায় সাড়ে ৮ ঘণ্টা পর রাজশাহীর সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ ছিল। সকালে লাইনচ্যুত বগি উদ্ধারের পর সকালে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে।

এর আগে সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ১০টার দিকে রাজশাহী থেকে পঞ্চগড়গামী বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস ট্রেনটি চারঘাটের সরদহ রেলওয়ে স্টেশনের অদূরে লাইনচ্যুত হয়েছে। এতে রাজশাহীর সঙ্গে সব ধরনের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। সরদহ স্টেশনের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তবে দুর্ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। রাজশাহী থেকে খবর পেয়ে ঈশ্বরদী জংশনের একটি রিলিফ ট্রেন এরই মধ্যে উদ্ধার কাজের জন্য ঘটনাস্থলের উদ্দশে রওনা দিয়েছে।

এ বিষয়ে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক আব্দুল করিম বলেন, রাজশাহীতে রেলওয়ে স্টেশন থেকে রাতে পঞ্চগড়ের উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস ট্রেনটি চারঘাটের সরদহ রেলস্টেশনের অদূরে লাইনচ্যুত হয়েছে। তবে এই ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, বগির আটটি চাকা লাইন থেকে নিচে নেমে গেছে। তবে ওই বগিটি রেখেই ট্রেনটি পঞ্চগড়ের উদ্দেশে কিছুক্ষণের মধ্যে ছেড়ে যাবে। আব্দুল করিম আরও বলেন, লাইনচ্যুত হওয়া বগিটি উদ্ধার করার জন্য ঈশ্বরদী জংশন থেকে একটি রিলিফ ট্রেন রওনা দিয়েছে। ট্রেনটি ঘটনাস্থলে পৌঁছালে লাইনচ্যুত বগিটি উদ্ধার করা হবে। তারপর এই রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হবে। এ ছাড়া দুর্ঘটনার কারণে রাজশাহী থেকে ঢাকাসহ পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের অন্যান্য রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে বলেও জানান তিনি।

সোমবার রাতের আন্তঃনগর ট্রেন ধূমকেতু এক্সপ্রেস ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে কী না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি রাত ১১টা ২০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিল। তবে বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত হওয়ার কারণে ধূমকেতু ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয় ঘটবে। ঈশ্বরদী থেকে রিলিফ ট্রেনটি চারঘাটের সরদহে পৌঁছার পর লাইনচ্যুত হওয়া বগিটি উদ্ধার করবে। তারপরই ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। এ সিডিউল বিপর্যয় মেনে যারা যেতে চাইবেন, তারা যাবেন। আর যারা যেতে চাইবেন না, তারা যাত্রা বাতিল করতে চাইলে টিকিট ফেরত নেওয়া হবে। সে ক্ষেত্রে তারা টিকিটের টাকা ফেরত পাবেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

নাঈম/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: