প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

কামরুজ্জামান জসিম

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

বিশ্ব নদী দিবস উপলক্ষ্যে নদীতে কাগজের নৌকা ভাসিয়েছে শিশুরা

   
প্রকাশিত: ৪:৪০ অপরাহ্ণ, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

ছবি: প্রতিনিধি

বিশ্ব নদী দিবসে সুন্দরবন অঞ্চলের নদ-নদী দখল ও দূষণ থেকে রক্ষার দাবি জানিয়ে শিশুরা কাগজের রঙ্গিন নৌকা মোংলা নদীতে ভাসিয়েছে। এবছর ‘আমাদের জনজীবনে নৌপথ’ শ্লোগানে বিশ্ব নদী দিবস পালিত হচ্ছে। রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকালে মোংলা নদীর মামার ঘাটে উপজেলা প্রশাসন, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ ও পশুর রিভার ওয়াটারকিপারের আয়োজনে একর্মসুচি পালিত হয়। প্রতীকী কাগজের নৌকা কর্মসুচি পালনের আগে বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রবিবার সকাল ১০টায় মোংলা নদীর মামার ঘাটে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) এর মোংলার আহ্বায়ক মো. নূর আলম শেখ। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। আলোচনা সভায় অন্যান্য মধ্যে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইউনুস আলী শেখ, জালিবোট সমিতির সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, দি হাঙ্গার প্রোজেক্ট বাংলাদেশ’র মনিটরিং অফিসার কাজী ফাতেমা বর্ণালী, প্রথম আলো বন্ধু সভার সভাপতি মো. আবুল কাশেম, বাপা নেতা আব্দুর রশিদ হাওালাদার, নাজমুল হক, কমলা সরকার, শেখ রাসেল, হাছিব সরদার, ট্যুরিস্ট লঞ্চ এ্যাসোসিয়েশনের মো. এমাদুল প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার বলেন সরকার টেকসই উন্নয়ন কর্ম পরিকল্পনার অংশ হিসেবে নদী-খালের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করছে। মোংলা উপজেলায় ৫৫টি প্রবাহমান সরকারি খাল দখল করা হয়েছে যা উচ্ছেদের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন দূষণ-দখল-অপরিকল্পিত শিল্পায়ন-আবাসন-সেতু-কালভার্ট এবং নদীতে জাহাজডুবি, জাহাজী বর্জ্য নিক্ষেপ, অপরিকল্পিত চিংড়ি ঘের ও ট্যুরিস্টদের অসচেতনতার কারণে সুন্দরবন অঞ্চলের নদ-নদীর অস্তিত্ব বিলীন হতে চলেছে।

সভাপতির বক্তব্যে বাপা মোংলার আহ্বায়ক মো. নূর আলম শেখ বলেন মহামান্য হাইকোর্ট বলেছে নদী একটি জীবন্ত স্বত্তা। তাই নদী-খালকে যারা হত্যা করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ক্ষমতার প্রভাবে মানুষ নদী দখল করছে। নদী আমাদের জনজীবনের সাথে সম্পৃক্ত। নদী দখলদারদের বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে।

ইমদাদ/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: