প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

৮ মাস বয়সী ছেলেকে বুকে নিয়ে বেঁচে ফিরলেন মা, মেয়ে নিখোঁজ

   
প্রকাশিত: ৭:০৭ অপরাহ্ণ, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার মাড়েয়া ইউনিয়নের আউলিয়ার ঘাট এলাকায় করতোয়া নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪০ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় এখনও নিখোঁজ অর্ধশতাধিক। ভয়াবহ এই নৌকাডুবির ঘটনায় বেঁচে যাওয়া বিপাশা চন্দ্র (৩২) জানিয়েছেন, ‘নৌকায় ওঠার পর দুলতে ছিল। এ সময় মাঝিরা কইছিল কিছুই হবে না, যাওয়া যাবে।’

আজ সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আহাজারিতে এসব কথা বলেন তিনি। গতকাল রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মহালয়া উপলক্ষে পাঁচপীর, বোদা, মাড়েয়া, ব্যাঙহারি এসব এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নৌকায় করে বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। এ সময় নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী ছিল। এ কারণে মাঝ নদীতে পৌঁছানোর পর যাত্রীর চাপে নৌকা ডুবে যায়। এ সময় কিছু মানুষ সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও বেশির ভাগ যাত্রীই এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। এখন পর্যন্ত ৪০ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে।

আহাজারিতে বিপাশা চন্দ্র (৩২) বলেন, ‘স্বামী, দুই সন্তান ও শাশুড়িসহ উঠেছিলাম। এ সময় অনেক চাপাচাপি করে নৌকাখান ছাড়ল। পরে মাঝখানে গিয়ে উল্টে গেল। এ সময় আমার বুকে ৮ মাস বয়সী ছেলেটা ছিল। বাম হাত দিয়ে বাচ্চাটা ধরে রাখছি আর ডান হাত দিয়ে নৌকা। আমার পুরো শরীর ডোবা। পানির নিচে অনেকক্ষণ ডুবেছিলাম। তারপর আর কিছু বলতে পারছি না। পরে ঘাটে এসে জ্ঞান আসে। আমি আর বাচ্চাটা পড়ে আছি। কে ঘাটে নিয়ে আসছে কিছু বলতে পারছি না। কিন্তু আমার মেয়েটাকে এখনও খুঁজে পাইনি।’ বিপাশার স্বামী বিলাশ চন্দ্র বলেন, রোববার বিকেলে নৌকা ডুবে যাওয়ার পর আমি নৌকার উল্টো পাশে উঠি। এ সময় শুধু সবার গলা আর মুখ দেখতে পাচ্ছিলাম। আমার স্ত্রী-সন্তানকে খুঁজে পাইনি। পরে মাকে দেখামাত্রই উদ্ধার করি। একই সঙ্গে ছেলে আর বউকে পেয়েছি। আমার মেয়ে এখনও নিখোঁজ রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গতকাল রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মহালয়া দেখতে আউলিয়া ঘাট থেকে বদশ্বেরী ঘাটে যাচ্ছিল নৌকাটি। নৌকায় ১০০ জনেরও বেশি যাত্রী ছিল। ছাড়ার শুরুতেই নৌকাটি দুলতে থাকে। দুলতে দুলতে মাঝপথে গিয়ে নৌকাটি ডুবে যায়। এখন পর্যন্ত ৪০ জনের লাশ পাওয়া গেছে। আরো অনেকে নিখোঁজ রয়েছেন। এ ঘটনায় পাঁচ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

রেজানুল/সা.এ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: