প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

শাহীন মাহমুদ রাসেল

কক্সবাজার প্রতিনিধি

বিশ্ব পর্যটন দিবস: কক্সবাজারে ৭ দিনের উৎসব শুরু

   
প্রকাশিত: ২:১০ অপরাহ্ণ, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষ্যে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র শহর কক্সবাজারে শুরু হয়েছে ৭ দিনের পর্যটন মেলা ও বীচ কার্নিভাল। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০ টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালীর মধ্য দিয়ে শুরু হয় এ উৎসব। বীচ বাইক, ঘোড়ার গাড়ি, বাদক দল ও মোটর শোভাযাত্রা নিয়ে র‌্যালীটি সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্ট হয়ে সুগন্ধা পয়েন্ট- হোটেল মোটেল জোন হয়ে লাবণী পয়েন্টে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষ লাবণী পয়েন্টে এসে বেলুন উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন ঘোষণা করেন অতিথিবৃন্দ।

লাবণী পয়েন্ট স্থাপিত সাম্পান মঞ্চের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক ও বীচ ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি মো. মামুনুর রশীদ।

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকতকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারে এবারই প্রথম সপ্তাহব্যাপী পর্যটন উৎসবের আয়োজন হয়েছে। কক্সবাজারকে একটি আন্তর্জাতিক মানের পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার প্রয়াসে এই উৎসবের আয়োজন।’

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জাফর আলম এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, কানিজ ফাতেমা এমপি, পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান সহ অন্যান্যরা।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রট (এডিএম) মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় পর্যটন সংশ্লিষ্ট সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, রাজনৈতিক ও পেশাজীবী নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। উৎসবকে কেন্দ্র করে লাবনী পয়েন্টে ২ শত টি স্টল স্থাপন করা হয়েছে। যদিও এসব স্টলের বেশিভাগ দুপুর পর্যন্ত খালি থাকতে দেখা গেছে। কিছু কিছু স্টলে জনপ্রিয় আচার, শুটকি, পিঠা, পোষাক সহ থাকবে নানা পন্য সাজানো হয়েছে।

উৎসবের প্রথম দিন ফাসি গেম্স, বীচ বাইক র‌্যালী, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ডিজে শোর আয়োজন রয়েছে। মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া এ উৎসব শেষ হবে ৩ অক্টোবর। প্রতিদিন নানা আয়োজনের মুখরিত থাকবে সৈকতের লাবণী পয়েন্ট। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে আগত পর্যটকদের বিশেষ ছাড়ের ঘোষণাও দেয়া হয়েছে প্রশাসনের পক্ষে। ঘোষণা মতে, মেলা চলাকালীন সময়ে পর্যটন সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সেবাও বিভিন্ন অংকের ছাড়ের কথা বলেছেন প্রশাসন।

কক্সবাজার রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ড’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. শফিকুর রহমান বলেন, ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে দেশের একমাত্র ফিশ অ্যাকুরিয়ামে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হয়েছে। এতে করে কক্সবাজারে আসা পর্যটকরা সমুদ্রের তলদেশের রহস্যসহ নানা প্রজাতির মাছ দেখতে পাবেন। অ্যাকুরিয়ামটি প্রতিষ্ঠার পর থেকে পর্যটকদের জন্য নানা সুবিধা দিয়ে আসছে।’

কক্সবাজারের রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সভাপতি নাইমুল হক চৌধুরী টুটুল বলেন, ‘পর্যটকদের হোটেল রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির ১৫ শতাংশ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ছাড় দিয়েছেন। উৎসবের সাত দিন পর্যন্ত এ হারে ছাড় দেওয়ার ঘোষণা রয়েছে। দ্রব্যমূল্য ঊর্ধ্বগতির কারণে এর চেয়ে বেশি ছাড় দেওয়া সম্ভব হয়নি।’

কক্সবাজার হোটেল মোটেল মালিক সমিতির সভাপতি মো. আবুল কাশেস সিকদার বলেন, ‘সমিতিভুক্ত প্রতিটি হোটেলে একটি কক্ষ ৮০০ টাকায় এক রাতের জন্য বুকিং দেওয়া হবে। অন্যান্য কক্ষ ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ ছাড় দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।’

এদিকে, বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজনে মেলায় থাকছে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, আগামী জীবনের প্রজন্ম বিষয়ক রচনা প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কৌতুক, বিচ ফুটবল ও ক্রিকেটসহ নানান ঐতিহ্য নিয়ে নাটক। এছাড়া প্রতিদিন সন্ধ্যায় সৈকতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবেন দেশের খ্যাতনামা শিল্পীরা। মেলায় বসছে ২৩০টি স্টল। এতে স্থানীয় নানা পণ্য, জনপ্রিয় আচার, শুটকি ও পিঠাসহ থাকবে হরেক রকমের আয়োজন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রট (এডিএম) মোহাম্মদ আবু সুফিয়ান বলেন, ‘পর্যটকদের সামনে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকতের গুরুত্ব তুলে ধরার জন্য এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। মেলা চলাকালীন আবাসিক হোটেলগুলোতে ২৫ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে হোটেল-মোটেল মালিক সমিতি। পাশাপাশি রেস্তোরাঁগুলোতে দেওয়া হবে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। দেশের একমাত্র ফিশ অ্যাকুরিয়াম রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ড ৫০ শতাংশ ছাড় দিয়েছে। এছাড়া সৈকতের কিটকট (বিচ ছাতা), বিচ বাইক, ওয়াটার বাইক, প্যারাসাইলিং, ছবি তোলাসহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সেবায় বিভিন্ন অংকের ছাড় দিয়েছে।

শাকিল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: