প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

মোঃ শাকিল শেখ

সাভার করেসপন্ডেন্ট

ফেসবুক ওয়ালে মা হারানো বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন যুবক, খোঁজে পেতে থানায় জিডি

   
প্রকাশিত: ৪:১৪ অপরাহ্ণ, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

ঢাকার গাবতলি মিরপুরে ঝরনা বেগম নামে এক (৫৫) বয়সী মাকে হারিয়ে নিজের ফেসবুক ওয়ালে মা হারানোর বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন মুরসালিন ইসলাম নামে এক যুনক। মাকে খোঁজে না পেয়ে ইতোমধ্যে দারুস-সালাম থানায় একটি জিডিও করেছে ঐ যুবক। মায়ের সন্ধান পেতে পোস্টটি শেয়ার করে আমার পাশে দাঁড়ানোর জন্য বিনিতভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকালে ভুক্তভোগী মোরসালিন ইসলাম মায়ের সন্ধান পেতে গাবতলি দারুস-সালাম থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে। এর আগে গত মঙ্গলবার রাত আনুমানিক রাত সাড়ে ১১ টার দিকে বাসা থেকে নিখোঁজ হন (৫৫) বছর বয়সী ঝরনা বেগম।

জিডিতে উল্লেখ করে মুরসালিন ইসলাম জানান, আমি এবং আমার আম্মা ২৬২/৫, লোকমান মঞ্জিল, বাতেন নগর, মাজার রোড, মিরপুর, গাবতলীতে প্রায় ১২ বছর ধরে বসবাস করে আসছি। আমি আর আমার আম্মা ছাড়া এই বাসায় অন্য কেউ থাকি না। গত ২৭-০৯-২০২২ তারিখ আমি কাজের সুবাদে রাত ১টা পর্যন্ত বাসার বাহিরে ছিলাম এবং রাত ৭টায় উনার সাথে আমার কথা হয়, এর কিচ্ছুক্ষন পর আমার মোবাইলে চার্জ না থাকায় মোবাইলটি বন্ধ হয়ে যায়।

বাসায় ফিরতে ফিরতে রাত ১:৩০ হয় এবং বাসায় ফিরে এসে দেখি আম্মা রুমে নেই। প্রতিবেশীর কাছে জিজ্ঞাসা করলে তারা বলেন রাত ১১:৩০ এ বাসা থেকে বের হয়ে যেতে দেখেছে। এরপর আম্মা আর বাসায় ফিরে আসেনি। সারা রাত আমি আশেপাশে অনেক খোজা খুজি করেও আম্মাকে কোথাও পায়নি। ইতোমধ্যে আমি দারুসসালাম থানায় জিডি করেছি। যাহার জিডি নং ১৬৪৭। যদি কোন হৃদয়বান ব্যক্তি তার সন্ধান পান তাহলে উপরোক্ত নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য বিশেষ অনুরোধ করা হইলো। মোবাইল: ০১৪০৬-২৫৫৩০৭/০১৯৩২-০১৭৮৪৬/০১৪০৬-২৫৫৩০১।

এবিষয়ে দারুসসালাম থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শরীফুজ্জামান বলেন, মুরসালিন নামে এক যুবক তার মাকে খোঁজে না পাওয়ায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। নিখোঁজ হওয়া ঐ নারীর কাছে মোবাইল ফোন না থাকায় ইতোমধ্যে আমরা প্রতিটি থানায় ঝরনা বেগম নিখোঁজের বিষয়টি জানিয়ে দিয়েছি। ভুক্তভোগীর সাথে আলোচনা করে মাইকিং করার পরামর্শ দিয়েছি। আমাদের তদন্ত চলমান রয়েছে।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: