প্রচ্ছদ / জেলার খবর / বিস্তারিত

শিপন সিকদার

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

স্বামীকে অপহরণে পাঁচ সন্ত্রাসী পাঠালেন স্ত্রী, অতঃপর!

   
প্রকাশিত: ১২:১৯ পূর্বাহ্ণ, ১ অক্টোবর ২০২২

ফতুল্লার শিয়াচর তক্কার মাঠ এলাকায় এমব্রয়ডারি কারখানার মালিককে কারখানা থেকে তুলে আনতে গিয়ে গ্রেফতার হয়েছে পাঁচ সন্ত্রাসী। ওই কারখানার মালিক আ. সালামকে তুলে আনতে তাদেরকে সালামের স্ত্রী পাঠিয়েছিলেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলো মুন্সিগঞ্জ জেলার সদর থানার মৃত হাবিবুল্লাহর পুত্র মোঃ রাহাত (৪১), ফতুল্লা মডেল থানার শিয়াচর তক্কার মাঠ এলাকার বড় বাড়ীর সালাউদ্দিনের পুত্র রাকিব(২৮), একই এলাকার আলী আফসারের পুত্র রাশেদুল ইসলাম(৩০), শিয়াচর তক্কার মাঠস্থ হিমাচল মাঠ সংলগ্ন জজ মিয়ার পুত্র রাসেল(২৯), লালখাঁ পিটিআই ভবন সংলগ্ন আব্দুর রউফ মিয়ার পুত্র শাওন(৩৪)।

এ ঘটনায় আঃ সালাম বাদী হয়ে গ্রেফতার পাঁচ জন ও স্ত্রী রাবেয়া বেগম আনু(২৮) সহ অজ্ঞাতনামা আরো ২-৩ জনকে আসামী করে বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছে।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, ফতুল্লার তক্কার মাঠ এলাকায় কেএসএস এমব্রয়ডারি নামক কারখানা দিয়ে বাদী ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। বাদী দীর্ঘ আট বছর পূর্বে ভোলা জেলার সদর থানার দেলোয়ার জমাদ্দারের মেয়ে রাবেয়া বপগম অনুকে বিয়ে করে। দাম্পত্য জীবনে তাদের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় চার বছর পূর্বে স্ত্রী অনু তাকে ছেড়ে চলে যান। এ সকল বিষয়াদি নিয়ে আদালতে মামলা চলছে।

বাদী সে মামলায় জামিনে রয়েছেন। কিন্ত বাদীর স্ত্রী তার নিকট বিভিন্ন সময় মোটা অংকের টাকা দাবীসহ এমব্রয়ডারি কারখানা দখল নিতে দীর্ঘদিন চেষ্টা করে আসছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় ২৮ সেপ্টেম্বর রাত সাতটার দিকে গ্রেফতারকৃতরা বাদীর কারখানায় প্রবেশ করে তার নিকট ২০ লাখ টাকা দাবী করে তাকে মারধর করে তুলে নিতে চাইলে কারখনার শ্রমিকরা জরুরী সেবা ৯৯৯ এ ফোন করেন।পুলিশ তৎক্ষনাৎ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে। তবে এ সময় পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় বাদীর স্ত্রী অনু সহ আরো কয়েক ভাড়াটে সন্ত্রাসী।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক কামাল হোসেন খান জানান, জরুরী সেবা ৯৯৯-এ ফোন পেয়ে বাদীর মালিকানাধীন এমব্রয়ডারি কারখানায় গিয়ে পাচজনকে গ্রেফতার করা হয়। কারখানার মালিক বাদী হয়ে তার স্ত্রীও গ্রেফতারকৃত পাচজন সহ অজ্ঞাতনামা আরো ২-৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। মামলাটি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে এবং অপর পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

সালাউদ্দিন/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: