প্রচ্ছদ / জাতীয় / বিস্তারিত

ইলিশ শিকারে ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা

   
প্রকাশিত: ২:৩০ অপরাহ্ণ, ৪ অক্টোবর ২০২২

ছবি - সংগৃহীত

বছরব্যাপী খরার পর ভোলার মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীতে ইলিশের দেখা মেলার পরপরই দেওয়া হলো ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা। আগামী শুক্রবার (৭ অক্টোবর) থেকে সংরক্ষিত মা ইলিশ মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞার খবরে হতাশ জেলেরা। সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীতে কাঙ্খিত ইলিশ দেখা যাচ্ছে। এ অবস্থায় মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান শুরুর খবরে আবারো হতাশা দেখা দিয়েছে জেলেদের মধ্যে।

এদিকে, এদিকে জেলার দুই লাখের বেশি কারাগারের মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার অনিবন্ধিত রয়েছে। তারা বছরের পর বছর ধরে সরকারি সাহায্য থেকে বঞ্চিত। জেলার এক লাখ ৫৭ হাজার নিবন্ধিত জেলে সহায়তা পেলেও প্রায় ৫০ হাজার অনিবন্ধিত জেলে এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। নিষেধাজ্ঞা পর ময় নষ্ট না করে তারা দিনরাত মেঘনার পানি ফিল্টার করে ইলিশসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ স্বীকারে ব্যাস্ত। মাছের বাজার ও মোকামে রমরমা ব্যবসা চলছে।

ভোলা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুলিয়া বলেন, প্রথমে নদীতে ইলিশ কম ছিল। তবে বর্তমানে অনেক ইলিশ ধরা পড়ছে। তাই অভিযানকে শতভাগ সফল করতে জেলেরা প্রস্তুত। কারণ এই অভিযান মেনে নিলে জেলেরা বড় ইলিশ পাবে। তবে অভিযানকালে সরকারের দেওয়া চাল জেলেদের ওপর কোনো প্রভাব ফেলে না। তা ছাড়া আরও কিছু দিতে হবে।

ভোলা সদর উপজেলা ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি মোঃ এরশাদ ফরাজী বলেন, ‘আমরা প্রথম দিকে জেলেদের খাদ্য সহায়তা দেওয়ার চেষ্টা করি। এবারও বরাদ্দ আসবে মন্ত্রণালয় থেকে। জেলেদের তালিকা হালনাগাদ করা হচ্ছে। অভিযানের শুরুতে নিবন্ধিত সকল জেলেকে খাদ্য সহায়তার আওতায় আনা সম্ভব হবে বলে আশা করছি।

আশরাফুল/সাএ

বিডি২৪লাইভ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পাঠকের মন্তব্য: